স্টাফ রিপোর্টার:: করোনা অতিমারী শুরুর পর বিশ্বব্যপী কঠিন সময় পার করছে। ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে প্রতিটি স্তরের মানুষ। বাস্তবতার সম্মুখীন হয়ে বেঁচে থাকার লড়াইয়ে সবাই। খেটে খাওয়া মানুষ মানবেতর জীবন যাপন করছে। এই সংকট কালীন মুহূর্তে আর্তমানবতার সেবায় এগিয়ে এসেছেন কিছু উদ্যমী তরুণ-তরুণী। সুন্দর ভবিষ্যৎ গড়ার লক্ষে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করে নবীন সংগঠন ইডিইএফ (Education Development and Empowerment Foundation)।

সোমবার( ১৯ জুলাই) সফল কার্যক্রম ‘প্রজেক্ট সহায়’ এর মাধ্যমে সংগঠনটি অভিষেক ঘটায়। ভাসমান ছিন্নমূল মানুষগুলোর পাশে দাঁড়ানোর উদ্দেশ্য নিয়ে সংগঠনটির কার্যক্রম শুরু হয়।

সংগঠনটি খিলগাঁও-মালিবাগ কমিউনিটি সেন্টার এলাকায় প্রায় ৫২ টি ছিন্নমূল পরিবারের মাঝে ত্রাণ হিসেবে পৌঁছে দেয় চাল,ডাল আলু,পেঁয়াজ ইত্যাদি। খাদ্যসামগ্রী ছাড়াও করোনা সম্পর্কে পরিবারগুলোর মাঝে গণসচেতনতা তৈরি, মাস্ক বিতরণ করেন। এছাড়াও পথশিশুদের মাঝে অন্য একটি দাতব্য সংস্থার সহযোগিতায় পৌঁছে দেয় অসংখ্য ওয়েফার।

এসময় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনটির কর্মী তাওহিদুল ইসলাম খান, আফসারা তাসনিম, আসিফ ফাইয়াজ স্মরণ, মির্জা আফসানা মিমি ও লিংকন সরকার।

সংগঠনটির শুরুর দিকে পোহাতে হয়েছে অনেক বাঁধা। প্রজেক্টের প্রাথমিক কার্যক্রম ৭ই জুলাই শুরু হয়ে নিজেদের সীমিত অর্থের সাথে জনসাধারণের অনুদান যোগ করার জন্য চালান দশদিন ব্যাপী ক্রাউড ফান্ডিং এর চেষ্টা। তবে নতুন সংগঠন হিসেবে গণ-অর্থায়নে ব্যাপক সাড়া না পেলে কয়েকজন মহানুভব মানুষ ও নিজেদের উপার্জনের বৃহৎ অংশ একত্রে মিলিয়ে তারা এই ছিন্নমূল পরিবারের পাশে দাঁড়ায়।

সংগঠনটির কর্মী তাওহিদুল ইসলাম খান ভবিষ্যৎ কার্যক্রম সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, “যেহেতু বর্তমানে বাংলাদেশে কোভিড-১৯ মহামারী ব্যাপক আকার ধারণ করছে, তাই আসন্ন ঈদ-আল-আজহার পর থেকে আমরা আমাদের সংগঠনের পক্ষ থেকে পরিকল্পনা করছি এই পুরো কোভিড-১৯ মহামারীর সময়ে বিনামূল্যে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক দ্বারা করোনা সম্পর্কিত টেলিমেডিসিন চিকিৎসা সেবা দেয়ার” ।

তিনি আরও বলেন, এই ত্রাণ পেয়ে নগরীর ভাসমান মানুষদের মাঝে দেখা যায় ঈদের আমেজ। পথশিশুদের নির্মল আনন্দ। মানুষের অশেষ ভালোবাসায় ইডিইএফ (EDEF) সংগঠনটি অনেক দূর পৌঁছাতে চায়।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here