ব্রাজিলের বাঁচা মরার লড়াই

ঢাকা: ২০তম ফিফা বিশ্বকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টে আজ সোমবার গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে ক্যামেরুনের বিরুদ্ধে বাঁচা মরার লড়াইয়ে নামছে স্বাগতিক ব্রাজিল। নক আউট পর্ব নিশ্চিত করার মিশনে আজ ক্যামেরুনের মোকাবেলা করবে দলটি। বাংলাদেশ সময় রাত ২ টায় রাজধানী ব্রাসিলিয়ার জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে ‘এ’ গ্রুপের ম্যাচটি। একই দিন একই সময়ে রেসিফে শহরে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে গ্রুপের অপর দুটি দল ক্রোয়েশিয়া ও মেক্সিকো। এছাড়া সোমবার রাত ১০ টায় কুরিতিবায় ‘বি’ গ্রুপ থেকে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন স্পেন মুখোমুখি হবে এশিয়া জোনের ফুটবল পরাশক্তি অস্ট্রেলিয়ার। একই সময় গ্রুপের অপর ২ দল হল্যান্ড ও চিলি লড়বে সাওপাওলোতে।
লুইস ফেলিপ স্কলারির ব্রাজিল ইতোমধ্যে গ্রুপ পর্বে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ক্রোয়েশিয়াকে হারালেও দ্বিতীয় ম্যাচে পয়েন্ট ভাগাভাগি করেছে মেক্সিকোর সঙ্গে। যারা শেষ ষোল নিশ্চিত করতে একই সময়ে রেসিফেতে ক্রোয়েশিয়ার মুখোমুখি হবে। যদিও স্বাগতিক দলের কোচ ও খেলোয়াড়রা দীর্ঘ পথ পরিক্রমার জন্য যে দক্ষতা প্রদর্শনের দরকার তা এখনো দেখাতে পারেনি বলে মনে করা হচ্ছে।
এ পর্যন্ত অনুষ্ঠিত সবগুলো বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করা ব্রাজিল কখনো প্রথম রাউন্ড থেকে বিদায় নেয়নি। কিন্তু গোল রক্ষক হুলিও সিজারের মতে প্রতিপক্ষ দলগুলোর মান সম্পন্ন খেলা সেলেকাওদের অগ্রযাত্রায় ব্যঘাত ঘটাচ্ছে। তিনি বলেন, এটি একটি কঠিনতম গ্রণপ। তবে এটি আমাদের জন্য দারুণ ব্যাপার। যে কোন ধরনের সমস্যা মোকাবেলার জন্য আমরা ৩টি দলের মোকাবেলা করার সুযোগ পাচ্ছি। কারণ এটি আপনাকে কোন জায়াগাটাতে বেশী মনোযোগি হতে হবে, সেটি বাতলে দিবে। যা সংক্ষিপ্ত সময়ের এ প্রতিযোগিতার জন্য খুবই গুরুত্বপুর্ন।
এবারের আসরে জয়লাভের অতিমাত্রায় চাপ রয়েছে ব্রাজিলের ওপর। কিন্তু গ্রুপ পর্বের ম্যাচে স্কলারীর দলকে আতঙ্কিত হলে চলবেনা। গোল ব্যবধানে তারা মেক্সিকোর চেয়ে এগিয়ে রয়েছে। তাই দ্বিতীয় রাউন্ডের টিকিট পেতে ব্রাজিলকে ড্র করলেও চলবে। যদি তাই হয়, তাহলে দ্বিতীয় রাউন্ডে তাদের লড়তে হবে হয় চিলি, কিংবা হল্যান্ডের সঙ্গে। সেই হিসেবে যদি গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে ব্রাজিল পরাজিত না হয় তাহলে দ্বিতীয় রাউন্ডের পথে কোন বাঁধাই নেই। তবে কোন কারণে যদি ক্যামেরুনের কাছে তারা হেরে যায়, তাহলে নক আউট পর্বে খেলার পথ তাদের জন্য বলতে গেলে খুবই সংকীর্ণ হয়ে পড়বে।
ভলকার ফিনেকের ক্যামেরুন দলটি ইতোমধ্যে নক আউট পর্বেও আগে তাদের বিদায়ের পথ নিশ্চিত করে ফেলেছে প্রথম দুটি ম্যাচে পরাজিত হয়ে। এর ফলে ১৯৯০ সালের পর আর কখনো নক আউট পর্বে খেলতে না পারার ধারাবাহিকতা অক্ষুণœ রাখল আফ্রিকান অদম্য সিংহরা। প্রথম ম্যাচে মেক্সিকোর কাছে ১-০ গোলে পরাজিত হবার পর দ্বিতীয় ম্যাচে ক্রেয়েশিয়ার কাছে ৪-০ গোলে হার মেনে প্রথম দল হিসেবে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিশ্চিত করেছে তারা।
দলটির বিশ্ব কাঁপানো সুপার স্টার স্যামুয়েল ইতো হাটুর ইনজুরীরর সঙ্গে লড়ছেন। মেক্সিকোর সঙ্গে ম্যাচের পর থেকে তিনি আর দলীয় অনুশীলনে যোগ দেননি। ফিনেক দেখলেন তার মিডফিল্ডার আলেক্সান্দ্রে সং অপেশাদার সুলভ আচরণের কারণে লাল কার্ড দেখে বিতারিত হয়েছেন। তার লেফট ব্যাক বেনন্ট আসু একোটো ম্যাচ শেষে মাঠেই বুট দিয়ে আঘাত করেছেন সতীর্থ বেঞ্জামিন মুকান্ডিওকে।
কোচ বলেন, কিছু কিছু খেলোয়াড়ের ব্যাপারে আমাদের কথা বলতে হবে। ওই খেলোয়াড়দের আচরণ কোনভাবেই সন্তোষজনক নয়। এ ধরণের কার্যকলাপ কোনভাবেই মেনে নেয়া যায় না। তিনি বলেন, ইতোমধ্যে প্রথম দুটি ম্যাচ নিয়ে আমরা বিশ্লেষণ করেছি। খেলোয়াড়দের নিয়ে আমরা এরপর ভাল কাজ করেছি। আমাদের মনোযোগের অভাবে কিছু কিছু পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে ম্যাচেও আমাদের ফিনিশিংয়ে ঘাটতি ছিল। তবে ব্রাজিলের বিপক্ষে আমরা ভাল করতে পারব।
সমস্যার মধ্যে থাকার পরও ক্যামেরুনকে নিয়ে যথেষ্ট ভিতি রয়েছে ব্রাজিল দলের। কারণ আফ্রিকান এ অদম্য সিংহরা ২০০৩ সালে ফ্রান্সে অনুষ্ঠিত কনফেডারেশন কাপে ১-০ গোলে হারিয়ে দিয়েছিল বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের। স্বাগতিক দলের ডিফেন্ডার ডেভিড লুইজ বলেন, ক্যামেরুন মাঠে নামবে নির্ভার হয়ে। পাশাপাশি প্রথম ২ ম্যাচের ফলাফলের প্রতিক্রিয়া নিয়ে দেশের ভাবমুর্তি পুনরুদ্ধার করার চেষ্টা করবে দলটি। আর আমাদের লক্ষ্য থাকবে গ্রুপ সেরা দল হিসেবে নকআউট পর্বে উন্নীত হওয়া। বাকীটা সময়ই বলে দেবে।

Print Friendly, PDF & Email
0Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

টি-টোয়েন্টি দিয়ে মাঠে ফিরছেন সাকিব

স্পোর্টস ডেস্ক::তিন দলের বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড-বিসিবি প্রেসিডেন্ট কাপ শেষ। বিসিবি এবার আয়োজন ...