বগুড়া: বগুড়া বোমা বানাতে গিয়ে বিস্ফোরণে সরকারি আজিজুল হক কলেজ শাখা শিবিরের সভাপতি জুয়েল সরকারের বাম হাতের কব্জি ও ডান হাতের ৩টি আঙুল উড়ে গেছে।

তাকে ইসলামী হাসপাতালে গোপনে চিকিৎসাদেবার সময় পুলিশ সেখান থেকে তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করেছে।

এসময় পুলিশ ওই হাসপাতালের চিকিৎসক, কর্মকর্তা, নার্স সহ ৮ জনকে আটক করে।

ডিবির ওসি মিজানুর রহমান জানান, সকাল আনুমানিক সাড়ে ১১ টায় বগুড়ার শিবির অধ্যুসিত জামিল নগরের বোমা (ককটেল) বানানোর সময় শিবির সরকারী আযিযুল হক কলেজ শাখার সভাপতি জুয়েল সরকারের বাম হাতের কব্জি ও ডান হাতের কয়েকটি আঙ্গুল উড়ে যায়।

ঘটনার পর পরই জুয়েলকে শহরের মফিজ পাগলার মোড়ে অবস্থিত ইসলামী হাসপাতালে ভর্তি করে শিবির কর্মীরা। এ সময় আহত শিবির নেতার অপারেশ করার সময় বিষয়টি পুলিশ টের পেয়ে ইসলামী হাসপাতাল ঘেরাও করে ।

অনেত তল্লাশীর পরেও তাকে খুজে না পেয়ে ক্লিনিকটির বাহির থেকে তালঅ লাগানো অপারেশ থিয়েটারের তালা ভেঙ্গে ভিতর থেকে গোপনে চিকিৎসার সময় আহত শিবির নেতাকে উদ্ধার করে । পরে তাকে আশংকা জনক অবস্থায় বগুড়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় পুলিশ ইসলামী হাসপাতাল থেকে হাসপাতালের পরিচালক সেলিম রেজা, চিকিৎসক মিজানুর রহমান, মেডিকেল এ্যাসিষ্ট্যান্ড আশরাফ আলী, নার্স তাহেরা, রমিসা, ফেরদৌসি ওয়ার্ড বয় মোকলেস ও সোহেল কে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে আসা হয়েছে।

তানসেন আলম/

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here