ব্রেকিং নিউজ

বৃষ্টি বিলাস !

বৃষ্টি বিলাস !  নূসরাত ইমা নূসরাত ইমা :: বর্ষা মানে অন্যরকম কিছু। বর্ষা মানে টিনের চালে ঝম ঝম শব্দ। বর্ষা মানে মন কেমন করা হাওয়া। বর্ষা মানে কবিতা। বর্ষা মানে গান। বর্ষা নিয়ে প্রতিনিয়তই কাব্য করা চলছে। বর্ষা নিয়ে বাংলায় কত শত কবিতা আছে। কত শত গান আছে তার হিসেব নেই। প্রচণ্ড গরমের পর বর্ষা এলে একটা ভালো লাগা জেগে ওঠে মনে। বৃষ্টি মানেই খিচুরি। বৃষ্টি মানেই ধোঁয়া ওঠা কফির কাপে আয়েশি বিকেল। বর্ষা মানেই বৃষ্টি বিলাস।

বর্ষা মানে কি সত্যিই সবার জন্য বৃষ্টি বিলাস? আমি যে বর্ষার কথা একটু আগে লিখলাম তা সবার ভাগ্যে কি জোটে?

আমি যে বর্ষার বর্ণনা দিলাম সেটা শুনতে, ভাবতে খুব ভালো লাগে। কিন্তু এইভাবে বর্ষা উপভোগ করতে পারে না এই দেশের সবাই।তবুও যে যার মত করে বৃষ্টি বিলাস করেই।এই দেশের মানুষের আটপৌরে জীবনে বৃষ্টি বিলাসের ধরণটা দেখা যাক।

এখন কি আর সত্যিই বর্ষা এলে মনে ভাল লাগা কাজ করে? আমার মত বর্ষা প্রেমির কপালেও আজকাল বর্ষা চিন্তার রেখা ফোটায়। আজকাল বর্ষা এলে বৃষ্টি বিলাসের চেয়েও আগে মনে আসে রাস্তার কথা। কর্মস্থলে যাবো কি করে? একটু বেশি বৃষ্টি হলেই রাস্তায় যে পরিমান পানি জমে তাতে যে কারুই এটা মনে হবে। বিশেষ করে যাদের গণপরিবহনে যাতায়াত করতে হয় তারা চরম ভোগান্তিতে পড়ে। শুধু যে ঢাকা, চট্টগ্রামের মত বড় শহরের এই অবস্থা তা নয় ছোট শহর গুলোও একই সমস্যায় ভুগছে।

চার পাঁচ দিন ধরেই সারা দেশেই বেশ বৃষ্টি হচ্ছে। আর সারা দেশে যারা নগরের বাসিন্দা তার নগরে বাস করার সুফল(!!) হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছেন। প্রথমত বৃষ্টি মানেই গনপরিবহন সোনার হরিণ হয়ে যায়। সুযোগ বুঝে তার ভাড়াও বেড়ে যায় ইচ্ছেমত। রাস্তাগুলো লেক-এ পরিণত হয়। কোথায় রাস্তা শেষ আরা ড্রেনের শুরু সেটা বোঝাই মুশকিল হয়ে যায়। বছরের পর বছর এমনই চলছে কোন নগরপিতাই এর সমাধান আজ পর্যন্ত করেননি। দিন দিন এই ভোগান্তির মাত্রা বাড়ছেই। কারু কোন মাথাব্যাথা আছে বলে মনে হয় না। অবশ্য যারা বড় বড় চেয়ারে বসে আছেন তাদের তো গনপরিবহনেও চড়তে হয় না, অথবা অর্ধেক পানিতে ডুবে রাস্তা পার হতে হয় না। তাদের মাথা তাই অনেক বড় বড় কাজে।

প্রতি বছর বর্ষা এলে সব পত্র-পত্রিকা টিভির খবরে বার বার এ নিয়ে প্রতিবেদনের হিড়িক পরে। পত্রিকা খুল্লেই জলে ডোবা রাস্তায় অর্ধেক ডুবে যাওয়া যানবাহন আর মানুষের ছবি একটা নিয়মে দাঁড়িয়েছে। মাঝে মঝে মনে হয় বোধয় খবর এর শিরোনাম হতেই কাতৃপক্ষ রাস্তাগুলো ঠিক করে না। নানা খবরের শিরোনাম হয়ে এই বর্ষা মৌসুমেই বিপুল উৎসাহে রাস্তা ঠিক করার নামে খোঁড়া খুড়ি করে জন দুর্ভোগের চরমে পৌঁছায়।

প্রতিবছর বর্ষা মৌসুমে যখন এই রাস্তা নিয়ে মানুষের দুর্ভোগ নিয়ে সবাই স্বরব হয় তখন কতৃপক্ষ আশ্বাস দেয় আগামী বর্ষা মৌসুমের আগেই রাস্তা ঠিক করা হবে। সত্যি বলতেকি ঠিক যে একদমই করা হয়না তাও নয়। কিন্তু এমন ঠিক করা হয় যে বিনা মৌসুমে এক পশলা বৃষ্টি হলেই সেই রাস্তা আবার গর্তে ভরে যায় এবং যথারীতি ডোবায় পরিণত হয়।

তবুও মধ্যবিত্তের বৃষ্টি বিলাস থামে না। আকাশে ঘন মেঘ দেখলেই প্রিয় মানুষটা কে নিয়ে রিক্সায় ঘুরে বেড়ায়। একটা অথবা এক গুচ্ছ কদম ফুল কিনে নেয় কেউ। ছাতার আড়ালে হঠাৎ চোখে চোখ পড়ে গেলে সেই ভাল লাগা বুকে করে বাড়ি ফিরে কেউ। তুমুল যান জটে অফিস থেকে বাড়ির পথে ঠিক বাসটায় বসার জায়গা পেয়ে কানে হেডফোন লাগিয়ে বৃষ্টি বিলাসে ডুবে যায় কেউ। বাড়ি ফিরে এক কাপ ধোঁয়া ওঠা চা। এই তো মধ্যবিত্তের বৃষ্টি বিলাস।

নগরে আরও কিছু মানুষ থাকে যারা আছে বলে সকলের বিরক্তির সীমা নেই। আবার তারা না হলে সব কাজ থেমে যাবে। হ্যা সেই মানুষ গুলোর কথা বলছি যারা জীবিকার তাগিদে নিজের ভিটা ছেড়ে এসে এই নগরে উদ্বাস্তুর জীবন কাটায়। বস্থির ঐ খুপরি ঘর গুলোতে শুয়ে স্বপ্ন দেখে। বর্ষা এলে সবচে বেশি ভোগান্তির স্বীকার হয় এই মানুষগুলো। নগরে প্রায় সব সুবিধা থেকে বঞ্চিত এই মানুষ গুলো কি বৃষ্টি বিলাসের কোন উপায় আছে? বৃষ্টি এলে যাদের ঘরের চালের ফুটো বন্ধ করতেই দম ফুরয়।

বৃষ্টি এলে ঐ ডোবা গর্তে ভরা রাস্তায় যে শরীরের সব শক্তি দিয়ে রিক্সা চালায়। শুধু একবেলা খাবার জোগাড় করতেই যে ৭০ বছরের বৃদ্ধ কে বৃষ্টি মাথায় নিয়ে রাস্তায় নামতে হয়। তার কাছে বৃষ্টি বিলাস তো প্রহসন। তবুও হঠাৎ কোন রাস্তায় দেখা যায় রিক্সায় জোর টান দিয়ে গান ধরে কেউ। ছোট ছোট নেংটো বাচ্চার দল মনের আনন্দে বৃষ্টিতে ভিজে কাঁদায় লাফা লাফি করে। কোন মা রাস্তার পাশেই ছোট্ট চুলোয় খিচুরি বসায়। এইতো অল্পের মাঝেই অনেক খানি বৃষ্টি বিলাস।

যুগে যুগে বাঙ্গালী বৃষ্টি নিয়ে কাব্য করেছে। গদ্য লিখেছে। গান বেঁধেছে। আবার রাস্তার ভোগান্তিতে অতিষ্ঠ হয়ে বৃষ্টিকেই দুষেছে। কিন্তু বাঙ্গালীর বৃষ্টি বিলাস থেমে থাকেনি। এইভাবেই চলতে থাক বৃষ্টি বন্দনা এই ভাবেই চলতে থাক বর্ষা বিলাস। আজ পহেলা আষাঢ়। বর্ষার প্রথম দিনে সবাইকে বর্ষার শুভেচ্ছা।

লেখক: haider_nusrat@yahoo.com

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

জুঁই জেসমিন

পুরুষের সেবা সোহাগের প্রয়োজনে নারীর অবস্থান প্রশ্নবিদ্ধ !

জুঁই জেসমিন :: সমাজে ক’জন পুরুষ, পুরুষের ভূমিকায় চলছে বলতে পারেন? তাদের নিজ ...