বৃষ্টির পানি সংরক্ষণ করে দৃষ্টান্ত স্থাপন

মো. ইকবাল হোসেন কচি

এম. আর. লিটন : দেশজুড়ে যখন বিশুদ্ধ পানি সংকট ও পানি সমস্যা নিয়ে হৈচৈ, তখন বৃষ্টির পানি সংরক্ষণ করে রান্নাবান্না ও গৃহস্থালি কাজে ব্যবহার করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন মানিকগঞ্জ শহরের পশ্চিম দাশড়ার বাসিন্দা মো. ইকবাল হোসেন কচি (৭০)। মানিকগঞ্জ শহরে তিনি কচি ভাই নামে পরিচিত, একজন সচেতন সিনিয়র সিটিজেন। সামাজিক ও সাংস্কৃতিক অঙ্গনে তাঁর রয়েছে অনেক অবদান।

মো. ইকবাল হোসেন কচি জানান, প্রায় ২০বছর আগে থেকে তিনি এই বৃষ্টির পানি সংরক্ষণ করেন। বৃষ্টি শুরু হওয়ার দশ মিনিট পরবর্তী সময় তার টিনের চল থেকে গড়িয়ে পড়া পানি প্লাস্টিকের বড় ড্রামে সংরক্ষণ করে সারাবছর জন্য মজুদ রাখেন।সম্প্রতি তিনি বৃষ্টির পানি সংরক্ষণের জন্য ১হাজার লিটারের একটি ট্যাংক কিনেছেন।এখানে যে পানি মজুদ রাখা হবে তা পরবর্তী সময় রান্নাবান্না ও গৃস্থালিসহ বিভিন্ন কাজে তিনি ব্যবহার করবেন। তিনি আরও জানান, শীত-মৌসুমে(নভেন্বর-ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত) বৃষ্টির পানির সংকট দেখা দেয় ।

ইকবাল হোসেন কচি বলেন, ‘বিশেষ করে বৃষ্টির পানির ডাল-ভাত রান্না অনেক ভালো হয়। এক বেলা থেকে অন্য বেলা খাওয়া যায়। খাবারগুলো দ্রুত নষ্ট হয় না। কিন্তু টিউবওয়েলের পানি দিয়ে ডাল-ভাত রান্না করার পর কালচে রং ধারণ করে এবং দ্রুত নষ্ট হয়।’ তিনি আরও বলেন, ‘বৃষ্টির পানির চা পান করা অনেক সুস্বাদু এবং তৃপ্তির। বৃষ্টির পানির চা, যে পান করেনি সে কখনো বুঝবে না বৃষ্টির পানির চায়ের স্বাদ।’

তিনি জানান, পৃথিবীর সবচেয়ে বিশুদ্ধ পানি হলো বৃষ্টির পানি। গ্রাম ও নগর জীবনে বিশুদ্ধ পানি হিসেবে বৃষ্টির পানির কোন বিকল্প নেই।

Print Friendly, PDF & Email
0Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

করোনা মোকাবিলায় ২১টি প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা

স্টাফ রিপোর্টার::বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, কোভিড-১৯ দক্ষতার সাথে মোকাবিলা করে ঘুরে দাঁড়িয়েছে ...