সোহানুর রহমান :: নারী ও শিশুদের প্রতি লিঙ্গভিত্তিক সহিংসতা প্রতিরোধে তরুণদের  সম্পৃক্ত করার উদ্যেগ নিয়েছে প্রতীকি যুব সংসদ। বরিশালবিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া যেকোন শিক্ষার্থী এই ফেলোশিপের জন্য আবেদন করতে পারবে।

ব্র্যাক ও এনগেজ মেন এন্ড বয়েজ নেটওয়ার্ক বাংলাদেশ’র সহযোগিতায় পরিচালিত জেন্ডার জাস্টিস ফেলোশিপের জন্য আগ্রহীদের প্রতীকি যুব সংসদ কার্যালয়ে আবেদনপত্রের সাথে প্রস্তাবিত কার্যক্রম বা গবেষণার ধারণাপত্র, পুর্ণাঙ্গ জীবনবৃত্তান্ত প্রেরণ করতে হবে। ১৪ ডিসেম্বর থেকে আবেদনপত্র সংগ্রহ শুরু হয়ে ২০ ডিসেম্বর পর্যন্ত চলবে। নারী ও শিশুদের প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে নুন্যতম ২ বছরের স্বেচ্ছাসেবী কর্মকান্ডে অভিজ্ঞদের প্রাধান্য দেয়া হবে বলে প্রতীকি যুব সংসদ সূত্রে জানা গেছে।
এই ফেলোশিপের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের সমীক্ষা পরিচালনা করে নারী ও শিশুদের প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে পুরুষ ও বালকদের ভূমিকা নিরুপণ করে প্রতিবেদন প্রকাশ করতে হবে।
বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে দুইজন শিক্ষার্থীকে ফেলোশিপ যাচাই বাছাই কমিটি চুড়ান্তভাবে মনোনীত করবেন। প্রত্যেকে ফেলো ৬ মাস মেয়াদী তাদের মাঠকর্ম ও সমীক্ষার জন্য এককালীন ৪১,৩৩৩ টাকা করে বৃত্তি পাবেন।
প্রতীকি যুব সংসদের নির্বাহী প্রধান সোহানুর রহমান জানান, শুধু এককেন্দ্রিক উদ্যেগের দ্বারা নারী ও শিশুর প্রতি নির্যাতন প্রতিরোধ করা সম্ভব নয়। এর জন্য দরকার সমন্বিত উদ্যোগ। প্রজন্ম সমতা অর্জণ করতে হলে নারী নির্যাতন প্রতিরোধে প্রয়োজন পুরুষ ও কিশোরের অংশগ্রহন একান্ত আবশ্যক। এই বিষয়ে কাজ করার প্রয়োজনীতা অনুভব করার ফলশ্রতিতেই এনগেইজ মেন অ্যান্ড বয়েজ জোটের সৃষ্টি। এই কাজ এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার মতো অভিজ্ঞতা এবং দক্ষ জনশক্তির ঘাটতি রয়েছে এবং পাশাপাশি  যৌনতা ও পুরুষালী আচরন নিয়ে তাত্ত্বিক জ্ঞানের কমতি রয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের মাধ্যমে পুরুষ ও পৌরষ বিষয়ে কিছু প্রমাণিক নজির সৃষ্টি করাই এই ফেলোশিপ প্রদানের মুখ্য উদ্দেশ্য।
যোগাযোগ ও আবেদনপত্র প্রেরণের ঠিকানা: সচিবালয়, প্রতীকি যুব সংসদ, এফ.আলম রওনক মঞ্জিল, গোড়াচাঁদ দাস রোড, বরিশাল।  ইমেইল: [email protected]   .
ফেলোশিপ শেষে নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের সার্টিফিকেট প্রদান করা হবে।
Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here