বিপাশা হায়াতকে সবাই অভিনেত্রী, নাট্যকার এবং একজন নাট্যপরিচালক হিসেবে চেনেন। পাশাপাশি তিনি একজন চিত্রশিল্পীও।

গত অক্টোবরে ১০ দিনব্যাপী একক চিত্রপ্রদর্শনীর আয়োজন করে তিনি চিত্রশিল্পী হিসেবে সবার নজর কেঁড়েছেন। ২০০৩ সালে বিপাশা হায়াত চারুকলা থেকে পেইন্টিংয়ের ওপর স্নাতকোত্তর ডিগ্রি নেন। তখন থেকেই তার ছবি অাঁকা নেশায় পরিণত হয়েছে। সময় পেলে এখনো তিনি রঙ-তুলি নিয়ে বসে পড়েন। এ পরিচয়ের বাইরে তার আরেকটি পরিচয় আছে। তিনি একজন প্রচ্ছদশিল্পীও। তবে পেশাধারী নন, শখের বসে তিনি বইয়ের প্রচ্ছদ অাঁকেন।

এ পর্যন্ত তিনি বাবা আবুল হায়াতের প্রকাশিত ১৪ বইয়ের মধ্যে ১২টিরই প্রচ্ছদ এঁকেছেন। আসন্ন একুশে বইমেলায় আবুল হায়াতের তিনটি বই প্রকাশিত হবে। জানা গেছে, এ বইগুলোর প্রচ্ছদও বিপাশা হায়াত অাঁকবেন। বইগুলোর মধ্যে রয়েছে, দুটি উপন্যাস এবং একটি স্মৃতিকথা। ‘উজান পাখি’ ও ‘মোহর’ নামের উপন্যাস দুটির প্রথমটি প্রেম কাহিনী নির্ভর। দ্বিতীয়টির গল্প এগিয়েছে একজন প্রাচীন জমিদারের অহঙ্কার এবং দাম্ভিকতা নিয়ে। এছাড়া একটি দৈনিক পত্রিকায় প্রকাশিত ‘নিপবনে’ শিরোনামের স্মৃতিকথাটির চতুর্থ পর্ব প্রকাশিত হবে। তিনটি বই-ই প্রকাশ করছে অনন্যা প্রকাশনী।
উল্লেখ্য, ২৫ অক্টোবর থেকে ৩ নভেম্বর পর্যন্ত টানা ১০ দিন বেঙ্গল শিল্পালয় গ্যালারিতে বিপাশা হায়াতের প্রথম একক চিত্রপ্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রদর্শনীটির নাম ছিল, ‘ভ্রমি বিস্ময়ে’।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here