রাকিবুল ইসলাম রাফি, রাজবাড়ি থেকে :: রাজবাড়ির গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়ায় যশোর থেকে ঢাকা গামী সোহাগ পরিবহনের একটি বাসের মধ্যে এক কিশোরীকে (১১) শীলতাহানির চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শুক্রবার দিনগত রাত সাড়ে দশটার দিকে দৌলতদিয়া ৩নং ফেরিঘাট এলাকায় সোহাগ পরিবহনের একটি বাসে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার সময় কিশোরী আত্মচিৎকার করলে বাসে থাকা অন্য যাত্রীরা তাকে উদ্ধার করে এবং ঐ বখাটেকে যাত্রীরা গণধোলাই দিয়ে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে।

বখাটের নাম মোঃ জিহাদ খাঁন (২২)। সে মাগুরা সদর উপজেলার জবডাল গ্রামের মোঃ রউফ খাঁনের ছেলে। এবিষয়ে কিশোরীর পিতা তৎক্ষনাৎ বাদী হয়ে গোয়ালন্দ ঘাট থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন।

মামলার এজাহারে তিনি উল্লেখ করেন, শুক্রবার সোহাগ পরিবহনের একটি নৈশ বাসে তিনি সপরিবারে যশোর থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা দেন। রাত দশটার কিছু সময় পর দৌলতদিয়া ৩নং ফেরিঘাট এলাকায় তাদের যাত্রাকৃত বাসটি নদী পারের অপেক্ষায় সিরিয়ালে আটকে ছিল। এসময় তার মেয়ের প্রচন্ড ঘুম আসলে পেছনের দিকে দুটি ফাকা ছিট নিয়ে সে ঘুমিয়ে পড়ে। এসময় বখাটে যাত্রী জিহাদ খাঁন চুপিসারে আমার মেয়ের পিছনে থাকা ছিটে গিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেয় এবং তার মোবাইল ফোন দিয়ে ছবি তোলার চেষ্টা করে। টের পেয়ে সে চিৎকার করে উঠলে বাসের অন্যান্য যাত্রী এবং আমরা গিয়ে তাকে উদ্ধার করি। এরপর বিষয়টি সম্পর্কে আমরা টহল পুলিশকে অবগত করলে তারা জিহাদ খাঁনকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

ইউনাইটেড নিউজকে ফোনালাপের মাধ্যমে বিষয়টির সত্যতা সম্পর্কে নিশ্চিত করেছেন গোয়ালন্দ ঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল্লাহ আল তায়াবীর।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here