মোঃ শহিদুল ইসলাম, বাগেরহাট প্রতিনিধি :: সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সরকার ও আইনবিরোধী বিভ্রান্তিমূলক ভিডিও বক্তব্য পোস্ট করায় বাগেরহাটে মোহাম্মাদ আলী খান (২৩) নামের এক ইসলামিক আর্মি ফোর্সের সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের পূর্বক আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

বুধবার (১৭ জুন) দুপুরে বাগেরহাট পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান পুলিশ সুপার পঙ্কজ চন্দ্র রায়।

এর আগে মঙ্গলবার (১৬ জুন) বিকেলে অভিযান চালিয়ে মোরেলগঞ্জ পৌর শহরের উত্তর সরালিয়া গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে মোহাম্মাদ আলীকে আটক করে মোরেলগঞ্জ থানা পুলিশ। আটক মোহাম্মাদ আলী খান উত্তর সরালিয়া গ্রামের রাজমিস্ত্রি মোঃ মনিরুজ্জামানের ছেলে। তিনি স্থানীয় মনোয়ারা বেগম ইসলামিয়া মহিলা মাদ্রাসা ও এসএ ক্যাডেট একাডেমীতে নিরাপত্তা প্রহরী হিসেবে চাকুরী করতেন।

পুলিশ সুপার পঙ্কজচন্দ্র রায় আরও জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আমরা জানতে পেরেছি লক্ষ্মীপুর জেলার বল গেটে চাকুরীরত অবস্থায় ২০১৯ সালের জানুয়ারি মাসে একটি ফরম পূরণের মাধ্যমে ইসলামিক আর্মি ফোর্সের (আইএএফ) এর সদস্য হন। পরবর্তীতে বিভিন্ন সময় তাদের সাথে মেইল ও ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারের মাধ্যমে যোগাযোগ করত। ১১ জুন দুপুরে তার বাড়ির পাশের দারুল ইসলাম ট্রাস্ট জামে মসজিদে বসে মুঠোফোনে তার বক্তব্য ধারণ করে। ফেসবুক ও ইউটিউবে আপলোড করে। পরে আব্দুল্লাহসহ অন্যান্য সহযোগীদের পরামর্শ ও সহায়তায় তার নিজ মোবাইল দিয়ে [email protected] এই মেইল আইডি থেকে সিলেট গ্যাস ফিল্ডস লিমিটেড এর [email protected] এই মেইলে মেইল পাঠিয়ে বাংলাদেশ সরকারের প্রচলিত আইনের বিরুদ্ধাচারণ ও বিভিন্ন বাহিনীর সদস্যদের নামে বিভ্রান্তি ছড়িয়ে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও জনসাধারণের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি করেছেন।

জিজ্ঞাসাবাদে আরও জানাযায়, সে জিহাদের নামে ইসলামী আইন প্রতিষ্ঠার জন্য বিভিন্ন সংগঠনের কাছ থেকে অর্থ সংগ্রহের চেষ্টা করে। সে বাংলাদেশ সরকার এবং বিভিন্ন বাহিনীকে সন্ত্রাসী হামলার হুমকী প্রদানসহ বাংলাদেশের শান্তি, শৃঙ্খলা, সংহতি, জননিরাপত্তা বিপন্ন করার চেষ্টা করেছে। তার এসব কর্মকান্ডের সাথে আর কেউ জড়িত আছে কিনা সেটা খতিয়ে দেখার চেষ্টা করছে বলে জানান তিনি।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here