ময়মনসিংহ : রেজা আলীকে ফের দলীয় মনোনয়ন দেয়ায় ঘরের আগুনে পুড়ছে ত্রিশাল আওয়ামী লীগ।

তাকে ‘বহিরাগত’ আখ্যায়িত করে মনোনয়ন বাতিল না করা পর্যন্ত আন্দোলন অব্যাহত রাখার ঘোষণা দিয়েছে আওয়ামী লীগ।

‘বহিরাগত হটাও,ত্রিশাল বাঁচাও আন্দোলন’ নামে তারা বিক্ষোভ শুরু করে দিয়েছে।

অন্যদিকে, পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে অতিরিক্ত পুলিশ, র‌্যাব ও বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।

শনিবার দুপুরে ত্রিশাল প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলন করে উপজেলা আওয়ামীলীগ। ওই সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ‘বহিরাগত হটাও,ত্রিশাল বাঁচাও আন্দোলনের’ সমন্বয়ক আলহাজ্ব আবুল কালাম।

সংবাদ সম্মেলনে রেজা আলীকে মনোনয়ন দেয়ায় তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে বলা হয়, প্রতিদিনই কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে। স্থানীয় ১৫জন মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্য থেকে যে কোনো একজনকে মনোনয়ন দিলে কারো আপত্তি থাকবে না।

এসময় উপস্থিত ছিলেন- জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব আব্দুল মতিন সরকার, ত্রিশালের সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্ব হাফেজ মাওঃ রুহুল আমিন মাদানী জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক জনাব অ্যাডভোকেট জালালউদ্দিন খান, সাবেক সদস্য ও ত্রিশাল উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক ফজলে রাব্বি, ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ঈসমাইল হোসেন সরকার, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা নাসিম আহমেদ, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সদস্য মোহাম্মদ নূরুজ্জামান, ত্রিশাল উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হামিদুর রহমান হামিদ, ত্রিশাল পৌরমেয়র এবিএম আনিসুজ্জামান, ত্রিশাল উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক আহ্বায়ক আবুল কালাম (গুরু কালাম), ত্রিশাল উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আনোয়ার হোসেন আকন্দ,জেলা আওয়ামী লীগ নেতা নবী নেওয়াজ সরকার, ভারপ্রাপ্ত উপজেলা চেয়ারম্যান শোভা মিয়া আকন্দ,উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মাহামুদা খানম রুমা,ত্রিশাল উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি হাসান মাহমুদ, কৃষকলীগ নেতা শাহাদত হোসেন বাবুল, আওয়ামী লীগ নেত্রী আইরিন কবীর ও চায়না বেগমসহ মনোনয়ন প্রত্যাশী ১৫ জনসহ আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

পরে বিকাল ৪টায় ত্রিশালে বাসস্ট্যান্ড মোড় থেকে রেজা আলীর বিরুদ্ধে ত্রিশালের আওয়ামী লীগ নেতাকর্মী এবং সাধারন জনগন জুতা ও ঝাড়ু মিছিল বের করে।
মিছিলটি ত্রিশালের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে সন্ধায় আবার বাসস্ট্যান্ড মোড়ে এসে শেষ হয়। এবং সেখানে বিক্ষোভ সমাবেশ করে। উক্ত সমাবেসে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব আব্দুল মতিন সরকার, ত্রিশালের সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্ব হাফেজ মাওঃ রুহুল আমিন মাদানী জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক জনাব অ্যাডভোকেট জালালউদ্দিন খান, সাবেক সদস্য ও ত্রিশাল উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক ফজলে রাব্বি, ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ঈসমাইল হোসেন সরকার, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা নাসিম আহমেদ, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সদস্য মোহাম্মদ নূরুজ্জামান, ত্রিশাল উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হামিদুর রহমান হামিদ, ত্রিশাল পৌরমেয়র এবিএম আনিসুজ্জামান, ত্রিশাল উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক আহ্বায়ক আবুল কালাম (গুরু কালাম), ত্রিশাল উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আনোয়ার হোসেন আকন্দ,জেলা আওয়ামী লীগ নেতা নবী নেওয়াজ সরকার, ভারপ্রাপ্ত উপজেলা চেয়ারম্যান শোভা মিয়া আকন্দ,উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মাহামুদা খানম রুমা, ত্রিশাল উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি হাসান মাহমুদ, কৃষকলীগ নেতা শাহাদত হোসেন বাবুল, আওয়ামী লীগ নেত্রী আইরিন কবীর ও চায়না বেগমসহ মনোনয়ন প্রত্যাশী ১৫ জনসহ আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

এর আগে শুক্রবার বিকেলে রেজা আলীর মনোনয়ন বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল সমাবেশ ও তার কুশপুতুল দাহ করে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীসহ সাধারন জনগন ।
প্রসঙ্গত, কুমিল্লার বাসিন্দা অ্যাডভোকেট রেজা আলী ব্যবসায়িক সূত্রে ত্রিশালে এসে ময়মনসিংহ-৭ (ত্রিশাল) আসন থেকে নৌকা মার্কার টিকেটে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন ২০০৮ সালে।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here