ঢাকাঃ আন্তর্জাতিক মানবিক উন্নয়ন সংস্থা এডুকো বাংলাদেশ, সিরাজগঞ্জ ও শরীয়তপুর জেলার বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ ৪১শ চরম দরিদ্র পরিবারকে ‘বাংলাদেশের বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থদের জন্য জরুরি সহযোগিতা’ প্রকল্পের মাধ্যমে সহায়তা দিয়েছে। সিরাজগঞ্জ জেলারকাজীপুর ও সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলা এবং শরীয়তপুর জেলার জাঞ্জিরা ও শরীয়তপুর সদর উপজেলায় সবচাইতে বেশী ক্ষতিগ্রস্তপরিবারের মাঝে এই সহায়তা প্রদান করা হয়েছে।

এডুকো বাংলাদেশের সহযোগী সংস্থা ন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রাম (এনডিপি)র মাধ্যমে সিরাজগঞ্জ জেলায় এবং শরীয়তপুর ডেভেলপমেন্ট সোসাইটি (এসডিএস)রমাধ্যমে শরীয়তপুর জেলায় প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হয়েছে।

সহায়তা প্যাকেজে অন্তর্ভুক্ত ছিলখাদ্য এবং স্বাস্থ্যসুরক্ষা সামগ্রীযার মাধ্যমে প্রতিটি পরিবার কমপক্ষে ১৫দিনের জন্য খাদ্য সহায়তা (১৫কেজি চাল, ৩কেজি আলু, ২কেজি ডাল, ১ লিটার রান্নার তেল (ভিটামিন এ এবং ডি সুরক্ষিত), ১কেজি আয়োডিনযুক্ত লবণ, ১কেজি চিনি) এবং স্বাস্থ্যসুরক্ষা সামগ্রী(সাবান, ১কেজি ডিটারজেন্ট পাউডার, ২ প্যাক স্যানিটারি ন্যাপকিন, ২০টি মাস্ক) পেয়েছে।

এছাড়াও, এই পরিবার গুলোপানি পরিশোধনের জন্য ২০পিস করে পানি পরিশোধক ঔষধ (হ্যালোজেন -১৫গ্রাম) পেয়েছে, যা এই বন্যা পরিস্থিতিতে জলবাহিত রোগ এড়াতে অত্যাবশ্যকীয় ছিল।

এডুকো বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর আবদুল হামিদ বলেন, ‘বন্যার ভয়াবহতা বিবেচনায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষগুলোর তাৎক্ষণিক সহায়তা জরুরি ছিল। কোভিড-১৯ পরিস্থিতি ও বন্যার ক্ষয়ক্ষতি মাথায় রেখে আমরা  দ্রুতগৃহহীন ও আটকে পড়া পরিবারগুলিকে সাধ্যমতো সহায়তা করেছি এবং খাদ্য ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী দুর্গত মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিয়েছি। এই ৪১শ পরিবারের মাধ্যমে আমরা প্রায় ২০,০০০মানুষের পাশে দাঁড়াতে পেরেছি। ১০,০০০ শিশুর প্রতি সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিতে পেরেছি।’

বিগত কয়েক বছর ধরে, এডুকোবাংলাদেশ মানবিক সহায়তার মাধ্যমে সমাজের সবচেয়ে সুবিধাবঞ্চিত মানুষের ক্ষয়ক্ষতি হ্রাস করতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। ২০২০ সালে, এডুকোবাংলাদেশ কোভিড-১৯ এবংআম্ফানে ক্ষতিগ্রস্থ প্রায় ১৬০,০০০ মানুষের কাছে নগদ অর্থ, খাদ্য এবং স্বাস্থ্যসুরক্ষা সামগ্রী  পৌঁছে দিয়েছে যার মধ্যে প্রায় ৪০ শতাংশই শিশু। ভবিষ্যতেও, এডুকো বাংলাদেশের  যে কোনো মানবিক সংকট ও বিপর্যয়ে আর্তমানবতার পাশে আঁচে।-প্রেস বিজ্ঞপ্তি

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here