বখাটেরা মেয়েকে না পেয়ে মা-কে পেটালো
জাহিদ আবেদীন বাবু, কেশবপুর(যশোর) প্রতিনিধি :: যশোরের কেশবপুরে  স্কুল পড়ুয়া মেয়েকে উত্তাক্তকারী বখাটেদের  বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় রাস্তায় ফেলে মা-কে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করেছে বখাটেরা।
এ ঘটনায় ছাত্রীর মা রিজিয়া বেগম বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার  ঐ বখাটেদের বিরুদ্ধে উপজেলা নির্বাহী অফিসার  বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ করেছে।
উপজেলার মঙ্গলকোট গ্রামের জেলে পাড়ার মিজানুর রহমান গোলদারের স্ত্রী রিজিয়া বেগম তার অভিযোগে উল্লেখ করেন, তার একমাত্র মেয়ে মোছাঃ সনিয়া থাতুন, মঙ্গলকোট আদর্শ মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে ১০ম শ্রেণীতে লেখা-পড়া করে। স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে  তার  মেয়েকে  প্রায় ৬/৭মাস ধরে একই গ্রামের হাসানুর মলোঙ্গীর ছেলে বখাটে ফয়সাল (১৬) ও গোলামের ছেলে রসুল (১৯) কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিলো। তাদের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় তারা  তার মেয়েকে মুখে এ্যাসিড মারাসহ বিভিন্ন হুমকী-ধামকী দেয়। মেয়ের কাছ থেকে ঘটনা জানতে পেরে  ঐ বখাটেদের  বিরুদ্ধে  সে প্রতিবাদ করলে তাকেও হুমকী প্রদান করে। এক পর্যায়ে তাদের ভয়ে সে তার  মেয়েকে প্রায় ১৫/১৬ দিন স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দেয়।
বুধবার ২৪-০৪-১৯ তারিখ রাত অনুমান ১ টার দিকে বখাটে রসুল, ফয়সাল, হাসানুর ও শাহিনুরসহ অজ্ঞাতনামা আরো ২ জন তার বাড়ীতে গিয়ে তার মেয়েকে জোর করে তুলে আনতে গেলে প্রতিবেশীদের বাঁধার মুখে বখাটেরা  পালিয়ে যায়। বৃহস্পতিবার  সকাল অনুমান ০৮ টার সময় মঙ্গলকোট বাজারে যাওয়ার সময় রহিমা বেগমের বাড়ীর সামনে পৌছালে উল্লেখিত বখাটেসহ  অজ্ঞাত ব্যক্তিরা মিলে প্রকাশ্যে  তাকে  কিল-ঘুষি মেয়ে রক্তাক্ত জখম ও  শ্লীলতাহানীর চেষ্ঠা করে। এলাকাবাসী তাকে  উদ্ধার করে  কেশবপুর হাসপাতালে ভর্তি করে।
এব্যাপারে কেশবপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মিজানুর রহমান জানান, অভিযোগ পেয়েছি, অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।
Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here