বইমেলায় আমার নতুন চার ও সম্পাদিত দুই বই

রহিমা আক্তার মৌরহিমা আক্তার মৌ :: চলছে অমর একুশে বইমেলা ২০১৯, বইমেলা শুরুর আগে থেকেই সবার অপেক্ষা বইমেলার এই মিলনমেলার জন্যে।
ফেব্রুয়ারি মানেই আমাদের অস্তিত্ব, ফেব্রুয়ারি মানেই মায়ের ভাষা, ফেব্রুয়ারি মানেই আমাদের মুখের বুলি অ আ ই ঈ। বছর জুড়ে নতুন বই প্রকাশ পেলেও অমর একুশে বইমেলা উপলক্ষে প্রকাশিত প্রায় সব বই । বিগত দিনের অভিজ্ঞতা থেকেই দেখেছি নতুনদের বইয়ের প্রচার হয় কম। অধিকাংশ পত্রিকা প্রবীণ ও সিনিয়ারদের বইয়ের আলোচনা নিয়েই ব্যস্ত। আর নারীদের বইয়ের প্রচার তো কমই, নতুন নারী লেখক হলেতো আরো কম।
১৯৭১ সালে স্বাধীনতা অর্জনের পর বায়াত্তর সালেই গ্রন্থ মেলার আয়োজন হয়েছিলো বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে। তবে এখন আমরা যে অমর একুশে গ্রন্থমেলা দেখছি তার আনুষ্ঠানিক সূচনা ১৯৮৪ সালে। বাহাত্তর ধরে হিসাব করলে ৪৭ বছর, আর চুরাশি ধরলে ৩৬ বছর বয়সি আমাদের প্রানের এই মেলার, ভাষার মেলার। একাডেমি প্রাঙ্গণ ছাড়িয়ে বইমেলার পরিসর বেড়ে ছড়িয়ে পড়েছে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে। একই সাথে বেড়েছে পাঠক ও লেখকের সংখ্যা। প্রতিবছর বই বিক্রির হারও বাড়ছে, এত এত বাড়ার মাঝে নারী লেখকদের সংখ্যা কিন্তু সেই হারে বাড়েনি। মেলায় আসা মোট বইয়ের ২৫ শতাংশের বেশি হবেনা নারী লেখকদের বই, এমনটাই অনেকের মতামত। তাহলে পুরো ৭০%/৭৫% বই পুরুষদের। হাতে গোনা কিছু নারী লেখকদের বই চললে ও প্রচারের দিক দিয়ে নারীরা অনেক পেছনে। তার কারণ নারীদের পদে পদে বাধা। বই প্রকাশের নির্দিষ্ট কোন নিয়ম নেই। যত প্রকাশনি তত নিয়ম, যত লেখক তত নিয়ম। নারী লেখকদের ক্ষেত্রে একটু নিয়ম বেশিই। প্রকাশকরা বলেন, ভালো পাণ্ডুলিপি পেলে আমরা বই করবো। কিন্তু নারী লেখকদের পান্ডুলিপি পেলে উনাদের দর দাম শুরু হয় মাছের হাটের মতো।
অমর একুশে বইমেলা ২০১৯ এ আমার চারটি নতুন বই। অনুগল্পের বই ‘অল্প স্বল্প গল্প’ ও শিশুতোষ গল্পের বই ‘প্রিয়ন্তির সারাবেলা’ এই বই দুইটি প্রকাশ করেছে চন্দ্রবিন্দু প্রকাশন, প্রচ্ছদ করেছেন মৌমিতা কর মৌ। ‘বেলা শেষের গদ্য’ বইটি ১৪ টি গল্পকে একমলাটে পাঠকের সামনে নিয়ে এসেছে  ঊষার দুয়ার প্রকাশনি, প্রচ্ছদ করেছেন রাজিব চৌধুরী। শিশুতোষ গল্পের বই ‘গল্পগুলো তুলতুলির’ বইটি প্রকাশ করেছে দাঁড়িকমা প্রকাশনী, প্রচ্ছদ করেছেন ফকির আল মামুন। এছাড়া দ্বীপজ পাবলিকেশন্স থেকে ‘আকাশের ঠিকানায় চিঠি’ ( বিবাহিত সংখ্যা ও মুক্ত-বন্ধন সংখ্যা) নামে দুইটি চিঠির বই সম্পাদনায় প্রকাশ পেয়েছে। বই দুটিতে রয়েছে ৮৫ টি চিঠি। মেলায় পাওয়া যাচ্ছে বইগুলো।
আমার ছোট মেয়ে ফারিহা আহসান অভ্র’র প্রথম একক বই, ‘ওদের পাশে আমরা’। বইয়ের গল্পগুলো ইত্তেফাক নবারুণ সহ জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত। বইটি এসেছে পাতা প্রকাশনি থেকে। পাওয়া যাচ্ছে মেলার
সোহরাওয়ার্দী উদ্যান স্টল নং ৪৪২।
অনুগল্পের বই- ‘অল্প স্বল্প গল্প’, চন্দ্রবিন্দু প্রকাশনা, সোহরাওয়ার্দী উদ্যান, স্টল নং ৪৭১।
‘প্রিয়ন্তির সারাবেলা'(শিশুতোষ গল্পের বই)
প্রকাশনা – চন্দ্রবিন্দু, সোহরাওয়ার্দী উদ্যান, স্টল নং ৪৭১।
‘গল্পগুলো তুলতুলির'(শিশুতোষ গল্পের বই)
প্রকাশনা – দাঁড়িকমা, সোহরাওয়ার্দী উদ্যান, স্টল নং ২৩৪।
‘বেলা শেষের গদ্য'(গল্পের বই) প্রকাশনা – ঊষার দুয়ার, সোহরাওয়ার্দী উদ্যান, স্টল নং ৩৯১, প্রমিলা- লিটল ম্যাগ চত্ত্বর।
‘আকাশের ঠিকানায় চিঠি'(চিঠির বই)
দ্বীপজ পাবলিকেশন্স, লিটলম্যাগ চত্ত্বর, স্টল নং ১০২।
আগের বইগুলো পাওয়া যাচ্ছে–
‘দেশ আমার ভাবনা আমার'(ছোট কলাম) পাওয়া যাচ্ছে,দ্বীপজ পাবলিকেশন্স, লিটলম্যাগ চত্ত্বর, স্টল নং ১০২।
‘মৌ’র চিঠির সাতকাহন'(চিঠির বই)পাওয়া যাচ্ছে, বাংলার প্রকাশ। সোহরাওয়ার্দী উদ্যান, স্টল নং ৪২৮, লিটলম্যাগ চত্ত্বর, স্টল নং ৮৮।
‘একাত্তর ও নারী’ (মুক্তিযুদ্ধের বই)পাওয়া যাচ্ছে, প্রকাশনা – ‘বাঙালি’ সোহরাওয়ার্দী উদ্যান, স্টল নং ১৮৯,।
‘গল্পের আয়নায় মানুষের মুখ’ গল্পের বইটি পাওয়া যাচ্ছে, মুক্তদেশ প্রকাশন, সোহরাওয়ার্দী উদ্যান, স্টল নং ৬১৫-৬১৬।
Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

সব প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুপুরের খাবার

স্টাফ রিপোর্টার :: দেশের সব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীকে ২০২৩ সালের মধ্যে ...