বাংলা প্রেস, নিউ ইয়র্ক থেকে :: যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায় আগাম ভোটের ফলাফলেও এগিয়ে আছেন ডেমোক্র্যাট পার্টির প্রার্থী জো বাইডেন। এ অঙ্গরাজ্যে ভোটকেন্দ্রে সোমবার থেকে আগাম ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। শুরু হয়েছে ডাকযোগে দেয়া ভোট গণনাও। তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যে এখন পর্যন্ত রিপাবলিকান পার্টির প্রার্থী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের চেয়ে ৪ লাখ ৭০ হাজার ভোট বেশি পেয়েছে ডেমোক্র্যাট পার্টির জো বাইডেন। ডাকযোগে বিপুল সংখ্যক মানুষ ভোট দেয়ায় নির্বাচনের দিন ভোটার উপস্থিতি কম হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
এখন পর্যন্ত করা সবগুলো জরিপেই দেখা গেছে গত বারের নির্বাচনের মত এবারও হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হতে যাচ্ছে ‘সানশাইন স্টেট’ নামে পরিচিত ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যে। ২০১৬ সালে অল্প কিছু ভোটের ব্যবধানে ডেমোক্র্যাট প্রার্থী হিলারি ক্লিন্টনকে হারিয়ে জয় পান ট্রাম্প।
১৯ অক্টোবর (সোমবার) ফ্লোরিডার ৬৭টি কাউন্টির মধ্যে ৫২টিতে ভোটকেন্দ্র খুলে দেয়া হয় আগাম ভোটের জন্য। অন্যদিকে, রবিবার পর্যন্ত ডাকযোগে আগাম ভোট দিয়েছেন ২৫ লাখ মানুষ। এত বিপুল সংখ্যক মানুষ ডাকের মাধ্যমে আগাম ভোট করায় ৩ নভেম্বর নির্বাচনের দিন কেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতি কম হবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।
অন্যদিকে, এক জরিপে দেখা গেছে- ফ্লোরিডার প্রবীণ জনগোষ্ঠীর মধ্যে ট্রাম্পের চেয়ে জো বাইডেনের জনপ্রিয়তা বেশি। কিন্তু হিস্প্যানিকদের মধ্যে ২০১৬ সালে হিলারি ক্লিন্টনের যতটা জনপ্রিয়তা ছিল তার ধারে কাছেও নেই বাইডেন।
এছাড়া শিক্ষিত তরুণ ভোটারদের ভোটকেন্দ্রে যাওয়ার প্রবণতাও কম। সেই তুলনায় ট্রাম্প সমর্থকদের কেন্দ্রে যাওয়ার প্রবণতা বেশি। ফলে ফ্লোরিডায় গতবারের নির্বাচনের ফলাফলের পুনরাবৃত্তি হতে যাচ্ছে কি-না এনিয়ে ডেমোক্র্যাটদের মাঝে শঙ্কা দেখা দিয়েছে।
এই অঙ্গরাজ্যের ভোট পেতে তাই প্রাণপন চেষ্টা করছেন বাইডেন। এরই মধ্যে ফ্লোরিডায় দুইবার প্রচার চালিয়েছেন তিনি। মাত্র অর্ধেক শতাংশ ভোটারও ফ্লোরিডায় ডেমোক্র্যাটদের জয়ের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে। এদিকে, ভোটার উপস্থিতি নিশ্চিতে ডেমোক্র্যাটদের ১০ কোটি ডলার অনুদান দিয়েছেন নিউ ইয়র্কের সাবেক মেয়র মাইকেল ব্লুমবার্গ।
Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here