ডেস্ক রিপোর্ট : : রাজনৈতিক দল হিসেবে আত্মপ্রকাশের পর এই প্রথম ৭ মার্চ পালন করছে বিএনপি। দলীয় হাইকমান্ড বলছে, ইতিহাসে যার যা প্রাপ্য তা স্বীকার করতে চায় জাতীয়তাবাদী দল। রোববার (৭ মার্চ) বিকেলে দিবসটি উপলক্ষে আলোচনা সভার আয়োজন করেছে বিএনপি।

অভ্যুত্থান-পাল্টা অভ্যুত্থান, বিশ্বাস-অবিশ্বাস, রক্তপাত আর উল্লাসের বিতর্কিত দিন, ১৯৭৫ সালের ৭ নভেম্বর ক্ষমতায় আসীন হওয়ার ৩ বছর পর ১৯৭৮ সালের ১ সেপ্টেম্বর রাজনৈতিক দল-বিএনপি গঠন করেন জিয়াউর রহমান।

স্বাধীন বাংলাদেশে এই দল তিনবার রাষ্ট্রক্ষমতায় আসে। সেই সঙ্গে ক্ষমতার বাইরে থেকে বিরোধী দলের ভূমিকায়ও ছিল দলটির। রাজনৈতিক দল হিসেবে আত্মপ্রকাশের পর থেকে কোনো বছরই দলটি বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষণের দিন ৭ মার্চ পালন করেনি। বরং শুরু থেকেই দেশের রাজনীতিতে স্বাধীনতাবিরোধীদের জায়গা করে দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে দলটির বিরুদ্ধে।

তবে এবারই প্রথম ৭ মার্চ পালন করছে দলটি। বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষণের দিন পালনের ঘোষণার পর থেকেই রাজনৈতিক অঙ্গনে প্রশ্ন ওঠে, তবে কি বিএনপি তার রাজনৈতিক অবস্থানে পরিবর্তন আনছে?

এ ব্যাপারে দলটির শীর্ষ নেতারা বলছেন, বঙ্গবন্ধু ও ৭ মার্চ অবশ্যই ইতিহাস। স্বাধীনতায় ভূমিকা রাখা সব জাতীয় নেতাকে প্রাপ্য সম্মান দিতে চায় বিএনপি।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ৭ মার্চের বঙ্গবন্ধুর ভাষণ অবশ্যই ইতিহাস। তার সম্মান, তার মর্যাদা তাকে দিতেই হবে।

এত বছর পর ৭ মার্চ পালনের সিদ্ধান্তের বিষয়টি নিয়ে চলছে আলোচনা। রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের অনেকেই বলছেন, দীর্ঘদিন পর হলেও শুভবুদ্ধির উদয় হয়েছে বিএনপির।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here