স্টাফ রিপোর্টার :: প্রতিষ্ঠার সাত বছর পেরিয়ে অষ্টম বর্ষে পা ফেলতে যাচ্ছে দেশের একমাত্র মিউজিক চ্যানেল গানবাংলা। ২০১৩ সালের ১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবসে বর্ণাঢ্য আয়োজনে যাত্রা শুরু করে চ্যানেলটি। দেশিয় সংগীতকে আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন করে উপস্থাপন করা সহ বিশ্বময় বাংলা গানকে ছড়িয়ে দেয়ার সংকল্প নিয়ে প্রতিষ্ঠার শুরু থেকে প্রশংসনীয় ভূমিকা রেখে আসছে চ্যানেলটি।

প্রতিষ্ঠার সাত বছরে ইতিমধ্যেই দেশের সংগীতাঙ্গনের শিল্পী কলাকুশলীদের একটি সর্ববৃহৎ প্লাটফর্ম হিসেবে গানবাংলা ইতিবাচক ভূমিকা পালন করেছে।

প্রতিনিয়ত দেশ ও দেশের বাইরের বিভিন্ন ধারার মানসম্পন্ন গান পরিবেশন করে একমাত্র ব্যতিক্রমী চ্যানেল হিসেবে দর্শকদের মাঝেও দারুণ জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে চ্যানেলটি।

শুধু তাই নয়, আন্তর্জাতিক গানের মঞ্চ হিসেবে গানবাংলার জনপ্রিয় গানের অনুষ্ঠান ‘উইন্ড অব চেঞ্জ’ দেশে-বিদেশে দারুণ প্রশংসিত হয়েছে। বিশ্বের ৩০ দেশের শতাধিক খ্যাতনামা মিউজিশিয়ানের অংশগ্রহণে ‘উইন্ড অব চেঞ্জ’-এ দেশিয় বিভিন্ন ধারার জনপ্রিয় গানগুলো পেয়েছে নতুন মাত্রা। যুদ্ধ-বিগ্রহের বর্তমান পৃথিবীতে ‘উইন্ড অব চেঞ্জ’-এর মাধ্যমে বিশ্বময় শান্তির বার্তা ছড়িয়ে দিতে দেশি-বিদেশি খ্যাতনামা শিল্পীরা কণ্ঠে স্লোগান তুলে নিয়েছেন ‘মিউজিক ফর পিস’। সংগীতে এমন অবদান রাখায় গানবাংলা টেলিভিশনের চেয়ারপার্সন ফারজানা মুন্নী ও প্রধান নির্বাহী কৌশিক হোসেনের হাত ধরে গানবাংলার প্রাপ্তির খাতায় যোগ হয়েছে দাদা সাহেব ফালকে অ্যাওয়ার্ডসহ মাদার তেরেজা ইন্টারন্যাশনাল অ্যাওয়ার্ড।

গানবাংলা প্রতিষ্ঠার সপ্তম বর্ষ পেরিয়ে অষ্টম বর্ষ পদার্পনের এমন ক্ষণে প্রধান নির্বাহী কৌশিক হোসেন তাপস বলেন, “মহান বিজয়ের এই দিনে গানবাংলা বছর ঘুরে নতুন শপথে নতুন যাত্রার দিকে এগিয়ে যায়। দেশের সংগীতশিল্পের অগ্রযাত্রায় ভূমিকা রাখতে সংকল্পবদ্ধ গানবাংলা ইতিমধ্যেই হয়ে উঠেছে বাংলা গানের মুখপত্র। আমাদের সফলতার পেছনে আছে দেশের সংগীতাঙ্গনের প্রতিটি মানুষের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ সমর্থন ও ভালোবাসা। শুধু দেশেই নয় আন্তর্জাতিক অঙ্গনের খ্যাতনামা শিল্পীদের আস্থা ও পূর্ণ সমর্থন গানবাংলা আশীর্বাদ হয়ে আছে সবসময়। গানবাংলার দর্শকরাই গানবাংলার প্রাণ। সকলকে আমাদের আন্তরিক ভালোবাসা ও কৃতজ্ঞতা।

প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারপার্সন ফারজানা মুন্নী বলেন, “ আমরা বিশ্বাস করি মহামারি পরবর্তী পৃথিবীতে অন্ধকার দূর করতে সংগীত হবে সবচেয়ে শক্তিশালী মাধ্যম। মানুষের মাঝে একতা ও শান্তি ছড়িয়ে দিতে ভূমিকা রাখবে সুর।”

গানবাংলা টেলিভিশনের সপ্তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে দেশের সংগীতশিল্পীদের শুভেচ্ছায় ভাসছে গানবাংলা। করোনাকালে এবার অনুষ্ঠিত হচ্ছে না গানবাংলা প্রাঙ্গনে কোন উৎসব, তবে এ উৎসব ছড়িয়ে দিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও টেলিভিশন চ্যানেলটিতে দিনভর থাকছে শিল্পীদের উৎসবমুখর উপস্থিতি।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here