পৃথিবীর সদৃশ আরেক গ্রহের সন্ধান পাওয়া গেছে বলে দাবি করেছেন একদল জ্যোতির্বিজ্ঞানী। পৃথিবী থেকে ৬০০ আলোকবর্ষ দূরে কেপলার ২২ বি নামের গ্রহটি পৃথিবীর মতোই বাসযোগ্য বলে ধারণা করছেন তারা।

সোমবার নাসার কেপলার স্পেস টেলিস্কোপ পরিচালনার সাথে জড়িত জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা গ্রহটি আবিষ্কারের ঘোষণা দেন।

কেপলার স্পেস টেলিস্কোপের মাধ্যমেই গ্রহটির সন্ধান পান তারা।

বিশ্বব্রহ্মাণ্ডে পৃথিবীর বাইরে প্রাণের অনুসন্ধান গবেষণায় কেপলার ২২ বি’র আবিষ্কার একটি গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি বলে জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা।

আয়তনে গ্রহটি পৃথিবীর ২ দশমিক ৪ গুণ বড় ও এর গড় তাপমাত্রা প্রায় ২২ সেন্টিগ্রেড, যা পৃথিবীর নাতিশীতোষ্ণ মণ্ডলের বসন্তকালের তাপমাত্রার মতোই। ওই গ্রহের এই তাপমাত্রার কারণে সেখানে পৃথিবীর মতো প্রাণপ্রাচুর্যের সম্ভাবনার ইঙ্গিত বহন করে।

আমাদের সৌরজগতে পৃথিবীর অবস্থান সূর্য থেকে যে দূরত্বে কেপলার ২২ বি গ্রহটি তার সূর্য থেকে এর মাত্র ১৫ শতাংশ কম দূরত্বে অবস্থান করছে। সৌরজগতে পৃথিবীর অবস্থানের এলাকাটি ‘বাসযোগ্য অঞ্চল’ হিসেবে চিহ্নিত। কেপলার ২২ বি’র অবস্থানও তার সৌরজগতের বাসযোগ্য অঞ্চলে।

গ্রহটি তার সূর্যকে প্রদক্ষিণে ২৯০ দিন সময় নেয়।

গ্রহটির আবিষ্কারক দলের সদস্য নাটালিয়া বাটালহা বলেন, “আমরা পৃথিবীর মতো বাসযোগ্য একটি গ্রহ খুঁজে পেয়েছি,” তিনি যুক্তরাষ্ট্রের সান জোন্স রাজ্য বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন জ্যোতির্বিজ্ঞানী।

ইউনাইটেড নিউজ ২৪ ডট কম/তথ্যপ্রযুক্তি

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here