নূর আলম, নীলফামারী প্রতিনিধি ::

নীলফামারী পৌরসভার ৪৯বছরের ইতিহাসে এবারই প্রথম ওয়ার্ড কাউন্সিলর হিসেবে একজন নারী প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। আগামী ২৮নভেম্বরের নির্বাচন ঘিরে তিন নং ওয়ার্ডের পাড়া মহল্লা চষে বেরাচ্ছেন তিনি। জয়ের ব্যাপারেও আশাবাদী এই নারী উদ্যোক্তা।

পারভীন আক্তার ওরফে বাসনা গাজর প্রতিকে অংশ নিচ্ছেন এই ওয়ার্ডে। নিজস্ব কর্মীর পাশাপাশি স্বামী ইয়াসিন আহমেদকে নিয়ে প্রচারণা চালাচ্ছেন গত ১২নভেম্বর প্রতিক পাওয়ার পর থেকে। ওয়ার্ডের কুমড়াখাওয়ার মোড় এলাকায় স্বামী ও দুই সন্তানকে নিয়ে বসবাস করেন তিনি।

নীলফামারী পৌরসভা নির্বাচনে পুরুষের ভীড়ে নারী প্রার্থীর অংশগ্রহণ বেশ সাড়া ফেলেছে ওয়ার্ডে। স্থানীয়রাও আলোচনা করছেন এই তাকে নিয়ে। তবে প্রার্থীর টার্গেট নারী ভোটারের নিয়ে। তাদের কাছে টানতে পারলে জয় নিশ্চিত বলে মনে করেন তিনি।

পারভীন আক্তারের স্বামী ইয়াসিন আহমেদ জানান, পাড়া মহল্লায় কর্মীদের পাশাপাশি প্রার্থীকে নিয়ে প্রচারণা চালাচ্ছি আমি। বেশ সাড়াও পাওয়া যাচ্ছে। বিশেষ করে নারী প্রার্থী হওয়ায় বিশেষ আগ্রহ দেখা গেছে ভোটারদের মাঝে। নারী ভোটাররা আশাও দিয়েছেন ভোট দেয়ার ব্যাপারে।

তিনি বলেন, সকাল থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত প্রচারণা চলছে ওয়ার্ডের বিভিন্ন এলাকায়। গাজর প্রতিকে অংশ নেয়া পারভীন আক্তার বলেন, আমার জানা মতে কখোনো কোন নারী প্রার্থী পৌরসভা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেনি। নারীদের ধৈয্য রয়েছে, সংসার চালায়। জনগণকে নিয়ে আমরা নারীরাও কাজ করি। সেই অভিজ্ঞতা রয়েছে। তবে সাধারণ ওয়ার্ডে নির্বাচনের ব্যাপারে পিছিয়ে
রয়েছি আমরা। সব নারীরাই দেখা যাচ্ছে সংরক্ষিত ওয়ার্ড সদস্য হিসেবে প্রতিদ্বন্ধিতায় বেশি আগ্রহ এ কারণে আমি সাধারণ ওয়ার্ডে নির্বাচনে আগ্রহ প্রকাশ করি। কারণ সেই শক্তি সামর্থ পুরুষের মত আমারও রয়েছে। সামাজিক অনেক কর্মকান্ডে সম্পৃক্ততা রয়েছে পাশাপাশি পোষাক কারখানা, বিউটি পার্লার ব্যবসায়ী হিসেবে অভিজ্ঞতা রয়েছে অনেক।

আমি ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি। নারীরা আমাকে কাছে টানছেন। আশ^াস দিচ্ছেন ভোট দেবেন। তিনি বলেন, আমি দৃষ্টান্ত রাখতে চাই। শুধু পুরুষরাই নয় নারীরাও সাধারণ ওয়ার্ডে নির্বাচন করতে পারে। আমি এবার করছি আগামীতে দেখবেন অনেক নারী
নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন সাধারণ ওয়ার্ডে।

একই ওয়ার্ডের বাসিন্দা রিপন কুমার মজুমদার বলেন, নারীরা সবক্ষেত্রে এগিয়েছে। নির্বাচনে অংশ নিয়ে তিনি সাহসিকতার পরিচয় দিয়েছেন। তিনি নির্বাচিত হলে দৃষ্টান্ত হিসেবে থাকবেন।

নারীর অধিকার ও ক্ষমতায়ন নিয়ে কাজ করা ডেমক্রেসিওয়াচ এর প্রকল্প সমন্বয়কারী কামাল হোসেন বলেন, নিঃসন্দেহে সাহসিকতার পরিচয় দিয়েছেন পারভীন আক্তার। আমি তাকে স্যালুট করি। আমরা দেখেছি বিভিন্ন ক্ষেত্রে একজন নারী যতটা
আন্তরিকতা নিয়ে কাজ করেন সেক্ষেত্রে পুরুষদের অনেকটা অভাব রয়েছে। আমি তাকে স্বাধুবাদ জানাই। নারী নেতৃত্ব প্রতিষ্ঠায় বাসনার নির্বাচনে অংশগ্রহণ আরো অনেকদুর এগিয়ে নেবে।

রিটার্নিং অফিসার জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, পৌরসভার তিন নং ওয়ার্ডে সাতজন প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। এরমধ্যে নারী প্রার্থী হিসেবে পারভীন আক্তার রয়েছেন। তিনি গাজর প্রতীকে অংশ নিচ্ছেন।

তিনি বলেন, ওয়ার্ডে ৪৮৩৮জন ভোটার রয়েছেন। প্রসঙ্গত নীলফামারী পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে তিনজন, সংরক্ষিত নারী ওয়ার্ড সদস্য পদে ২২জন এবং সাধারণ ওয়ার্ডে ৬০জন প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here