ব্রেকিং নিউজ

পুকুরে ইলিশ মাছ!

পুকুরে ইলিশ মাছ! সৈকত দত্ত, শরীয়তপুর প্রতিনিধি :: শরীয়তপুর সদর উপজেলার আঙ্গারিয়া ইউনিয়নের চরচটাং গ্রামে এক কৃষকের পুকুরে একঝাক ইলিশ মাছ ধরা পরেছে। সংবাদ ছড়িয়ে পরলে জেলার বিভিন্ন স্থান সহ স্থানীয় জনতা, সাংবাদিক ও মৎস্য কর্মকর্তাগণ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়। বাড়ির মালিক হাবিব মাদবর জেলেদের মাধ্যমে ইলিশ মাছ ধরার ব্যবস্থা করে। প্রাথমিক ভাবে ইলিশ মাছ হিসেবে প্রতিয়মান হয়েছে। উপজেলা মৎস্য অফিস ইলিশ মাছ সনাক্তের জন্য চাঁদপুর গবেষনাগারে পাঠানোর প্রস’তি নিচ্ছে।

শরীয়তপুর জেলাসহ পাশবর্তী জেলা মাদরীপুরে পুকুরে ইলিশ মাছের ঘটনা ছড়িয়ে পড়ে। শুক্রবার (৪মার্চ) সকাল থেকেই চরচটাং গ্রামের হাবিব মাদবরের বাড়ি ও পুকুর পাড়ে উৎসুক জনতার ভিড় বাড়তে থাকে।

সরেজমিন গিয়ে জানা যায়, মঙ্গলবার পুকুরের মাছ পচির্যার জন্য পুকুর মালিক হাবিব মাদবর পুকুরে জাল ফেলে। তখন অন্যান্য মাছের সাথে ইলিশ মাছ ধরা পড়ে। এভাবেই এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে পুকুরে ইলিশ মাছের কাহিনী। সেই থেকেই জনমনে বিভিন্ন প্রশ্ন থাকে কিভাবে ইলিশ মাছ পুকুরে থাকে? এরই ধারাবাহিকতায় আনুষ্ঠানিক ভাবে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, সাংবদিক ও জন সাধারণের উপস্থিতিতে (শুক্রবার) সকাল ১০ টায় পুকুরে জাল ফেলা হয়। তখনও জালে ইলিশ মাছ ধরা পড়ে।

পুকুর মালিক হাবিব মাদবর বলেন, গত ৩ বছর যাবত বাড়ির পাশে পুকুর কাটি। পাশবর্তী খাল থেকে পুকুরে পানি দিয়ে দেশীয় রুই, কাতল মাছের চাষ করি। গত মঙ্গলবার সাকালে মাছ ধরার জন্য পুকুরে জাল ফেললে অন্যান্য মাছের সাথে ইলিশ মাছ ধরা পড়ে। তাই আজ আনুষ্ঠানিক ভাবে মাছ ধরছি সেখানেও ইলিশ মাছ পাওয়া গেছে।

পুকুর থেকে মাছ ধরার সময় জেলে মাজিদ, কামালদের সাথে আলাপ কালে জানায়, আমার মাছ ধরার দীর্ঘ ১৬ বছরের অভিজ্ঞতায় এই প্রথম পুকুরে ইলিশ মাছ পেলাম। আমার বাবাও জেলে পেশায় নিয়জিত ছিল তার মুখেও পুকুরে ইলিশ মাছ পাওয়ার কথা কখনও শুনিনি।

গত মঙ্গলবার পুকুরে পাওয়া ইলিশ মাছ খেয়েছে শারমিন, সাইফুল ও প্রতিবেশী আমেনা বেগমদের সাথে আলাপ কালে জানায়, পুকুরে ইলিশ মাছ ধরা পরেছে তার তিন দিন পরে আমরা খেয়েছি। প্রথমে মনে করছিলাম ইলিশ মাছ নদীতে থাকে পুকুরে কিভাবে আসে। তাই আমরা প্রথমে মাছ খাইনি। খেয়ে ইলিশ মাছের স্বাধ ও ঘ্রান পূর্ণাঙ্গই পেয়েছি।

পাশবর্তী আবুল কাশেম মিয়া জানায়, নদীর প্রবাহ ছাড়া ইলিশ মাছ হয় না। আড়িয়াল খাঁ নদীর পাশে আমাদের এলাকা। আমাদের খালের সাথে আড়িয়াল খাঁ নদী প্রবাহমান। জোয়ারের সময় নদীর পানি খালে আসে আর খলের থেকে পুকুরে পানি সেচ দিয়ে মাছ চাষ করা হয়েছে। আমার ধারনা খালের পনিতে ইলিশের ডিম বা বাচ্চা ছিল। এ ছাড়া পুকুরের ইলিশ মাছ থাকার কোন উপায় নাই।

সদর উপজেলা সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ সিরাজুল হক বলেন, পুকুর থেকে ধরা ইলিশ মাছ দেখেছি। প্রাথমিক ভাবে ইলিশ মাছ বলেই প্রতিয়মান হয়েছে। তবে ৪ জাতের ইলিশ মাছের রয়েছে। এটা কোন জাতের ইলিশ বা অন্য কোন প্রজাতের মাছ কি না তা সনাক্তের আমরা চাঁদপুর মৎস্য গবেষনা গারে প্রেরনের ব্যবস্থা করছি। প্রতিবেদন পেলে নিশ্চিৎ হওয়া যাবে।

Print Friendly, PDF & Email
0Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

ইনজেকশন দেয়া গরু চিনবেন যেভাবে

ষ্টাফ রিপোর্টার ::ঈদুল আজহার আর মাত্র ক’দিন বাকি। ঈদুল আজহা মূলত মহান ...