পিকনিকের বাস উল্টে শিশু নিহত: আহত ৩০

পিকনিকের বাস উল্টে শিশু নিহত: আহত ৩০

জাহিদ আবেদীন বাবু, কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি :: যশোরের কেশবপুর-সরসকাটি-সড়কের ভালুকঘর এলাকায় একটি পিকনিকের বাস উল্টে পুকুরের পানিতে পড়ে সাব্বির নামের এক শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু ঘটেছে।

এ সময় বাসের প্রায় ৩০ জন আহত হয়েছে। আহতদের ১৪ জনকে কেশবপুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গুরুতর আহত তিনজনকে খুলনা মেডিকেল কলেজে প্রেরন করা হয়েছে।

সোমবার সকালে কেশবপুরের ভালুকঘর বালির পুকুর নামক জায়গায় নিয়ন্ত্রন হারিয়ে সড়কের পাশে পুকুরের পানিতে উল্টে গেলে এ ঘটনা ঘটে ।

জানা গেছে, সাতক্ষীরার বাউকোলা ও আগরদাড়ি গ্রামে লোকজন বাগেরহাটে পিকনিকে যাচ্ছিল। ভোরের কুয়াশা ও হেলপার বাস চালানোর কারনে সাথী পরিবহনের (সাতক্ষীরা-জ ১১-০০৯২) বাসটি কেশবপুরের ভালুকঘর বালির পুকুর নামক জায়গায় নিয়ন্ত্রন হারিয়ে সড়কের পাশে পুকুরের পানিতে উল্টে যায়।

এলাকাবাসি বাসের গ্লাস ভেঙ্গে সকলকে উদ্দার করলেও মায়ের কোলে থাকা ৫ বছরের সাব্বিরকে জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেস সাব্বির একটি সিটে আটকে ঘটনাস্থলেই মারা যায়। উদ্ধারের পর সাব্বিরকে কেশবপুর হাসপাতালে নেয়া হলে ডাক্তাররা তাকে মৃত ঘোষনা করেন। সাব্বির বাউকোলা গ্রামের কামরুল ইসলামের পুত্র।

বাসের ৪৩ জন যাত্রীর সবায় কমবেশী আহত হয়েছে। আহতরা হলো শিরিনা (১৮), আনিকা (১৫ মাস), ফারহানা (১৬), রুহী (১৪ মাস), সোহাদা (২৫), জুলেখা (১৫), শামিউল (১০), মোস্তাকিন (১২), ঝুমৃর (১৮), সোহাগ (২৬), মারিয়া (১৭), সাজু (১৬), শহর ভানু (৪০), ও রাজিয়া বেগম (৫০)। আহতদের মধ্যে আনিকা, রুহী ও মোস্তাকিনকে খুলনা মেডিকেল হাসপাতালে রেপার করা হয়েছে।

ঘটনার পর কেশবপুর থানার পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের মনিরামপুর ইউনিট বাসটি উদ্ধারের চেষ্টা করছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিজানূর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। গাড়ির চালক পালিয়েছে। আহতরা জানিয়েছেন হেলপার গাড়ি চালাতে গিয়ে নিয়ন্ত্রন হারিয়ে ফেলে।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

চলতি বছরের উচ্চমাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়েছে। এ বছর পাসের হার ৭৩.৯৩ শতাংশ। বুধবার সকাল ১০টার দিকে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে ফলাফলের অনুলিপি হস্তান্তর করা হয়। চলতি বছরে ৪৭ হাজার ২৮৬ জন শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ পেয়েছেন। এছাড়া, আটটি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডে গড় পাসের হার ৭১.৮৫ শতাংশ, মাদরাসা বোর্ডে ৮৮.৫৬ শতাংশ এবং কারিগরি বোর্ডে ৮২.৬২ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছেন। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা আবুল খায়ের জানান, বেলা ১২টায় মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ফলের বিস্তারিত প্রকাশ করা হবে। উল্লেখ্য, গত ১ এপ্রিল সারা দেশে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হয়। ৯ হাজার ৮১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মোট ১৩ লাখ ৫১ হাজার ৫০৫ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নেয়।

এইচএসসির ফল প্রকাশ: পাসের হার ৭৩.৯৩ শতাংশ

স্টাফ রিপোর্টার :: চলতি বছরের উচ্চমাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) ও সমমান পরীক্ষার ফল ...