ডেস্ক রিপোর্ট::  ভয়াবহ আত্মঘাতী হামলা চালিয়ে পাঁচ চীনা প্রকৌশলীকে হত্যার ঘটনায় সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে হামলার কমান্ডারসহ ৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পাকিস্তান পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিট (সিটিডি) পেশোয়ার শাখা।দেশটির উত্তরপশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্য খাইবার পাখতুনখোয়ার বিভিন্ন অঞ্চলে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে সোমবার এক বিবৃতি জানিয়েছে সিটিডি পেশোয়ার।

এর আগে এপ্রিলের শুরুর দকে একই অভিযোগে ১০ জনেরও বেশি সন্দেহভাজনকে গ্রেপ্তার করেছিল সিটিডি পেশোয়ার। তাদের কাছ থেকে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে এই চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে সোমবারের বিবৃতিতে। গ্রেপ্তারদের সবাই পাকিস্তানের নিষিদ্ধ রাজনৈতিক গোষ্ঠী তেহরিক-ই তালিবান পাকিস্তানের (টিটিপি) সদস্য।

গত ২৬ মার্চ খাইবার পাখতুনখোয়ার শাংলা উপজেলার বিশাম শহরের কারাকোরাম হাইওয়েতে চীনা প্রকৌশলীদের বহনকারী গাড়িকে লক্ষ্য করে আত্মঘাতী হামলা চালান এক নারী। এতে ঘটনাস্থলেই নিহত হন গাড়ির ভেতরের ৫ জন প্রকৌশলীর সবাই, গাড়ির চালক এবং হামলাকারী নারী।

চীন সরকারের অর্থায়নে খাইবার পাখতুনখোয়ার দাসুতে জলবিদ্যুৎ প্রকল্প নির্মাণের কাজ চলছে। নিহত চীনা প্রকৌশলীদের সবাই সেই প্রকল্পের কাজে পাকিস্তানে অবস্থান করছিলেন। আর হামলাকারী নারী এবং গাড়ির চালক ছিলেন পাকিস্তানের নাগরিক।

ওই হামলার পর নিরাপত্তাজনিত কারণে দাসু জলবিদ্যুৎ প্রকল্প এবং দিমের-ভাসা জলবিদ্যুৎ প্রকল্পের যাবতীয় কাজে স্থগিতাদেশ দেয় বেইজিং।

সিটিডি পেশোয়ারের কর্মকর্তারা পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম জিও নিউজকে বলেন, হামলায় বিস্ফোরক লাদেন ভেস্ট ব্যবহার করা হয়েছিল এবং ভেস্টটি তৈরি করা হয়েছিল আফগানিস্তানে। এমনকি হামলা সংক্রান্ত গোটা অপারেশন পরিচালনার জন্য আফগানিস্তান থেকে এক তালেবান কমান্ডারকেও নিয়ে এসেছিল টিটিপি।

গ্রেপ্তার চারজনের মধ্যে ওই কমান্ডার রয়েছেন। টিটির আমন্ত্রণে বেলুচিস্তান-আফগানিস্তানের চমন সীমান্ত ক্রসিং দিয়ে তিনি পাকিস্তানে প্রবেশ করেছিলেন বলে জানিয়েছে সিডিটি পেশোয়ার।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here