মহানন্দ অধিকারী মিন্টু, পাইকগাছা প্রতিনিধি ::
খুলনার পাইকগাছায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের ঝুঁকিপূর্ণ ওয়াপদার ভেড়িবাঁধ ভেঙ্গে বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়েছে। ভেসে গেছে কয়েকশত ছোটবড় মৎস্য ঘের। অনেক বাড়িতে পানি ঢুকে পড়েছে। রবিবার(১৪আগস্ট) দুপুরে প্রবল জোয়ারে উপজেলার সোলাদানা ইউনিয়নের পানি উন্নয়ন বোর্ডের ২৩নং পোল্ডারের বয়ারঝাঁপা এলাকায় ভাঙ্গাহাড়িয়া নামক স্থানে ওয়াপদার প্রায় ৩০ ফুট ভেঙে লোকালয়ে পানি প্রবেশ করেছে। ফলে বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়ে কয়েক শত ছোট বড় মৎস্য ঘের তলিয়ে গিয়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।
সোলাদানা ইউনিয়ন পরিষদের ৮নং ওয়ার্ডের সদস্য আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, দুপুরে জোয়ারে শিবসা নদীর পানি স্বভাবিকের চেয়ে বৃদ্ধি পেয়ে বাঁধ ভেঙে লোকালয়ে পানি প্রবেশ করছে। পানিতে ভেসে গেছে কয়েকশত ছোটবড় মৎস্য ঘের। আমরা এলাকাবাসী বাঁধের পাশে অপেক্ষা করছি, ভাটার সময়ে বাঁধ নির্মাণের কাজে নেমে পড়বো।
তিনি আরো বলেন, বাঁধ নির্মাণ সম্ভব না হলে রাতের জোয়ারে এ ইউনিয়নের প্রায় ৫ গ্রাম পানিতে তলিয়ে যাওয়ার আশংকা রয়েছে। ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান গাজী জানান, আমার ইউনিয়নের শিবসা নদীর তীরবর্তী বয়ারঝাঁপা এলাকায় ভাঙ্গাহাড়িয়া নামক স্থানে ওয়াপদার ভেড়িবাধটি ভেঙে গিয়ে প্লাবিত হয়েছে। আমি তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে গিয়ে প্লাবিত এলাকা পরিদর্শন করেছি। ভাটার সময়  উপজেলা প্রশাসনের তত্বাবধায়নে আমি সহ স্হানীয় এলাকাবাসী স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে ক্ষতিগ্রস্ত ভেড়িবাঁধটির মেরামতে নেমে পড়বো বলে আশা করছি।
পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মোঃ রাজু হাওলাদার জানান, বাঁধ ভেঙ্গে যাওয়ার খবর পেয়ে আমি সহ স্হানীয় সংসদ সদস্যের উপজেলা পাওবো’র প্রতিনিধি মোঃ আকরামুল ইসলাম ও সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষ প্লাবিত এলাকায় যাই এবং উপজেলা প্রশাসনের তত্বাবধায়নে এলাকাবাসী স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে সরবরাহকৃত প্রয়োজনীয় সরঞ্জামাদির মাধ্যমে কাজ করে ক্ষতিগ্রস্থ বাঁধটি প্রাথমিকভাবে মেরামত করতে সক্ষম হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার মমতাজ বেগম বলেন, প্রবল জোয়ারে পানি উন্নয়ন বোর্ডের ঝুঁকিপূর্ণ ওয়াপদার ভেড়িবাঁধ ভেঙ্গে পানি প্রবেশ করেছে, ভাঁটার সময় বাঁধের কাজ শুরু করা হবে। বাঁধ নির্মাণের জন্য প্রয়োজনীয় জিনিস পাঠানো হয়েছে।
Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here