ডেস্ক রিপোর্ট : : শুরু হয়েছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনের দ্বিতীয় দফার ভোটগ্রহণ। বৃহস্পতিবার (১ এপ্রিল) স্থানীয় সময় সকাল ৭টা থেকে ভোট শুরু হয়ে চলবে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত।

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার ৪ আসন, বাকুড়া জেলার ৮ আসন এবং পূর্ব ও পশ্চিমমেদিনীপুর এই দুই জেলার ১৮ আসন মিলিয়ে মোট ৩০ আসনে ভোটগ্রহণ চলছে।
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তার একসময়ের সহযোদ্ধা বির্তমান বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী, অভিনেতা হিরণ চট্টোপাধ্যায়, অভিনেত্রী সায়ন্তিকা বন্দ্যোপাধ্যায়, মন্ত্রী মানস ভুইয়াসহ ১৭১ জন প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারণ হবে ভোট শেষে।

চার জেলার ৩০ আসনের মোট ভোটারের সংখ্যা প্রায় ৭৭ লাখ। এর মধ্যে প্রায় অর্ধেক নারী ভোটার রয়েছেন। ৩০ আসনের সবচেয়ে আলোচিত আসন নন্দীগ্রাম। সেখানে মুখোমুখি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও শুভেন্দু অধিকারী।

৩০ আসনের মধ্যে একমাত্র নন্দীগ্রাম আসনে ১৪৪ ধারা জারি করে ভোট নেওয়া হচ্ছে। ভোটের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে প্রায় ৭০০ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। সেই সঙ্গে রয়েছে রাজ্য পুলিশের প্রায় ১২ হাজার সদস্যরাও।

সহিংসতা রুখতে ভারতের নির্বাচন কমিশন এবার ৮ দফার ভোটগ্রহণ করার সিদ্ধান্ত নেন। প্রথম দফার ৩০ আসনে ভোট নেওয়া হয় ২৭ মার্চ। তৃতীয় দফার ভোট নেওয়া হবে আগামী ৬ এপ্রিল। শেষ দফার ভোট হবে ২৯ এপ্রিল। ভোটের রায় জানা যাবে আগামী ২ মে।

এদিকে ভোটের আগের রাতে পশ্চিম মেদিনীপুরের কেশপুরের বিধানসভার দাদপুরের এক তৃণমূলকর্মীকে ছুরি দিয়ে আঘাত করে খুন করা হয়েছে বলে তার পরিবার থেকে দাবি করা হয়েছে।

গতকাল বুধবার (৩১ মার্চ) রাতে তার বাড়ির সামনে এই ঘটনা ঘটে। ভোটের আগে এই খুনের ঘটনা নিয়ে উত্তেজনা তৈরি হয়েছে সেখানে। পরিবারের অভিযোগ, বিজেপির সন্ত্রাসীরাই তাকে খুন করেছে। যদিও বিজেপির এই দায় অস্বীকার করেছে।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here