ব্রেকিং নিউজ

পরাণ রহমানকে রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি প্রদানের দাবী

শামসুন্নাহার রহমান পরাণ

স্টাফ রিপোর্টার :: পরাণ রহমান বাংলাদেশে উন্নয়ন সেক্টরের আইকন ছিলেন, মুক্তিযুদ্ধের পরপরই শামসুন্নাহার রহমান পরাণ ঘাসফুল প্রতিষ্ঠা করেন এবং দেশ পুন:গঠনে প্রশংসনীয় ভূমিকা রাখেন। সমাজের অনগ্রসর মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য আমৃত্যু কাজ করে গেছেন । পরবর্তীতে বীরাঙ্গনাদের মুক্তিযোদ্ধা স্বীকৃতি অর্জনে তিনি ব্যাপক প্রচারণার পাশাপাশি নানামুখি আন্দোলন চালিয়ে যান। কুমিল্লা চৌদ্দগ্রামের বীরকন্যা মুক্তিযুদ্ধা আফিয়া খাতুন খঞ্জনীকে তিনি পরিত্যক্ত গোয়ালঘর থেকে উদ্ধার করে মুক্তিযোদ্ধা স্বীকৃতি আদায়ে সফল হন। চট্টগ্রামে নারী অধিকার ও তাদের অর্থনৈতিক উন্নয়নে তিনি ছিলেন অগ্রদুত । পরাণ রহমান এনজিও সেক্টরে একজন পথিকৃত ছিলেন। চট্টগ্রামে কর্মরত উন্নয়ন সংস্থাসমুহের জন্য একজন দায়িত্ববান মমতাময়ী অভিভাবক ছিলেন। তিনি শুধু উন্নয়ন কর্মী নয়, লেখালেখি ও গবেষণায়ও ভূমিকা রেখেছেন। পরাণ রহমানের কর্ম-জীবন আমাদের জন্য পাথেয় হয়ে থাকবে। এ মহিয়ষী নারীকে রাষ্ট্রীয়ভাবে স্বীকৃতি দেয়া এখন সময়ের দাবী।

শনিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) বিকালে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের বঙ্গবন্ধু মিলনায়তনে আয়োজিত পরাণ রহমান পদক-২০২০প্রদান, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের পুরস্কার বিতরণ ও স্মরণানুষ্ঠানে বক্তারা এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে সমাজে বিভিন্ন সেক্টরে অনন্য অবদানের জন্য দুই ক্যাটাগরিতে তিনজনকে ‘পরাণ রহমান পদক ২০২০’ প্রদান করা হয়। পদক বিজয়ীরা হচ্ছেন সমাজসেবায় রাজিয়া সামাদ ডালিয়া, নৃগোষ্ঠীর সফল উদ্যোক্তা মঞ্জুলিকা চাকমা, তৃণমূলে সফল উদ্যোক্তা মোমেনা বেগম।

ঘাসফুল নির্বাহী পরিষদ চেয়ারম্যান ড. মনজুর-উল-আমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত স্মরণসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. এ.এফ.ইমাম আলী।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রাক্তন মুখ্যসচিব ও ব্র্যাকের উপদেষ্টা মো: আবদুল করিম, উন্নয়ন সংস্থা মমতার প্রধান নির্বাহী আলহাজ্ব রফিক আহমদ, অনন্যা কল্যাণ সংগঠনের নির্বাহী পরিচালক ডনাই প্রু নেলী, দৈনিক সুপ্রভাত বাংলাদেশ এর সম্পাদক রুশো মাহমুদ এবং ঘাসফুল নির্বাহী পরিষদ সদস্য পারভীন মাহমুদ এফসিএ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন ঘাসফুল এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আফতাবুর রহমান জাফরী।

পরাণ রহমানের প্রাক্তন সহকর্মী হিসেবে অনুভূতি প্রকাশ করেন পিকেএসএফ এর সহকারী মহাব্যবস্থাপক (অডিট) মো: শাখাওয়াত হোসেন মজুমদার ও বর্তমান সহকর্মী ঘাসফুল ডাইরেক্টর (অপারেশন) মোহাম্মদ ফরিদুর রহমান, প্রশাসন ও মানব সম্পদ বিভাগের উপ পরিচালক মফিজুর রহমান।

স্বজনের অনুভূতি প্রকাশ করেন পরাণ রহমানের নাতনী ও ঘাসফুল নির্বাহী পরিষদ কোষাধ্যক্ষ জেরিন মাহমুদ হোসেন, সাদিয়া রহমান, ছোট মেয়ে ঝুমা রহমান এবং পরাণ রহমানের জীবনী রচনাকারী আর ডি সি এর সেক্রেটারী জান্নাত-এ-ফেরদৌসী, কুমিল্লার সমাজ সেবিকা বেগম শামসুন নাহার ও সাবেক অধ্যাপক বেগম রোকেয়া আলম। উপস্থাপনায় ছিলেন বিটিভির চট্টগ্রাম কেন্দ্রের উপস্থাপক নাসরীন ইসলাম।

স্মরণসভায় গত ১৪ ফেব্রুয়ারি পরাণ রহমান স্মরণে অনুষ্ঠিত চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় ‘ক ও খ’ দুইটি গ্রুপে ১ম. ২য় ও ৩য় স্থান অধিকারীদের পুরস্কার প্রদান করা হয়। ‘ক বিভাগে’ পুরস্কার প্রাপ্তরা হলেন, ১ম স্থান অধিকার করে মোহাম্মদীয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রী শুভ্রময়ী সেন, ২য় স্থানে পিটিআই স্কুলের ছাত্র আবরার ফাতিন আদিব এবং তৃতীয় হয়েছে জেমস ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের ছাত্র হাসান মোহাম্মদ তাহিয়ান ।

“খ বিভাগে’ প্রথম স্থান অধিকার করে কাপাসগোলা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রী হামীম সারতাজ আনওয়া, ২য় স্থান পেয়েছে অরবিট স্কুলের ছাত্রী সামিয়া ইসলাম ন্যান্সি এবং ৩য় স্থান পেয়েছে উদয়ন ছোটদের স্কুলের ছাত্রী সৈয়দা শাওরিয়া আফরিন।

অনুষ্ঠানে পরান রহমানের শুভাকাঙ্খী, বিশিষ্ট নাগরিকবৃন্দ, সরকারি ও বেসরকারি, সাংবাদিক, এনজিও প্রতিনিধিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

করোনা মোকাবেলায় জাতীয় সামাজিক উদ্যোগ প্রয়োজন: রেজাউল করিম চৌধুরী

মোঃ আরিফ হোসেন :: বেসরকারি সংস্থা কোস্ট টাস্ট -এর নির্বাহী পরিচালক রেজাউল ...