ডেস্ক রিপোর্ট:: পদ্মা সেতুর জাজিরা প্রান্তের সব রোডওয়ে স্ল্যাব বসে গেছে। এখন সেতুর সব শেষ খুঁটি জাজিরার ৪২ নম্বর থেকে মাওয়ার কাছের ১৩ নম্বর খুঁটি পর্যন্ত গাড়িতে আসা সম্ভব। এদিকে, সেতুর রেলওয়ে স্ল্যাব বসানো হয়ে গেছে দুই হাজার ৮৪৭টি। আর এক হাজার ৩১২টি স্ট্রিনজারের মধ্যে বসানো বাকি মাত্র ১৬টি।

বাংলাদেশের দুর্বার গতিতে এগিয়ে যাওয়ার প্রতীক এখন পদ্মা সেতু। সবকিছু পরিকল্পনা মাফিক চললে দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের যুগের পর যুগ ধরে যাতায়াতের চরম দুর্ভোগের অবসান ঘটবে আগামী বছরের জুনেই মধ্যেই।

এতে সেতুটি যানচলাচল উপযোগী হওয়ার আরেক ধাপ এগিয়ে গেল। সেতুর রেলওয়ে স্ল্যাব বসানো হয়ে গেছে ২৮৪৭। আর ১৩১২টি স্ট্রেনজারের বসানো বাকি মাত্র ১৬টি। এই কাজ সম্পন্ন করতে চলছে মহাকর্মযজ্ঞ এখন। স্বপ্ন বাস্তবায়নের তাই, নির্মাণকর্মীরাও খুশি।

ভরা বর্ষাতেও উত্তাল পদ্মার ওপরে সেতুর কাজ চলবে পুরোদমে। সেতুর বাকি স্ল্যাবগুলো ইয়ার্ড থেকে সড়ক পথে মাওয়ার ১ নম্বর পিয়ার দিয়ে উঠবে বলে জানান পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্পের নির্বাহী প্রকৌশলী সৈয়দ রজব আলী।

৬ দশমিক এক পাঁচ কিলোমিটার দীর্ঘ চার লেনের পদ্মা সেতুর দুই প্রান্তের ৩ দশমিক এক চার কিলোমিটারের সংযোগ সেতু দুই লেন করে সড়কে যুক্ত হবে। তিন ভাগে ছয় লেন ইতোমধ্যে যুক্ত হয়ে গেছে।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here