ডেস্ক রিপোর্ট:: মাদারীপুরের শিবচরে পদ্মায় স্পিডবোট দুর্ঘটনায় ২৬ জন নিহতের ঘটনায় করা মামলার প্রধান আসামি স্পিডবোট চালক শাহ আলমকে (৩৮) গ্রেপ্তার দেখিয়েছে পুলিশ। এর আগে পুলিশ পাহারায় শাহ আলম ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। রোববার (১৬ মে) রাত ১০টার দিকে তাকে শিবচর থানার পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। সোমবার সকালে তাকে আদালতে পাঠায় পুলিশ।

শিবচরের চরজানাজাত নৌপুলিশ ফাঁড়ির উপসহকারী পরিদর্শক (এএসআই) মো. রায়হান উদ্দিন জানান, গত ৩ মে মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া থেকে মাদারীপুরের বাংলাবাজার ঘাটে আসার পথে কাঁঠালবাড়িতে নোঙর করা বাল্কহেডকে সজোরে ধাক্কা দেয় একটি দ্রুতগতির স্পিডবোট। এতে প্রাণ হারান ২৬ যাত্রী। এতে আহত হন স্পিডবোটের চালকসহ পাঁচজন।

পরে গুরুতর আহত চালক মো. শাহ আলমকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। প্রশাসনের নির্দেশে ওই চালকের ডোপ টেস্টের নমুনা সংগ্রহ করে রাখা হয়। পরে তার ডোপ টেস্টের রিপোর্ট পজিটিভ আসে। তিনি ইয়াবা ও গাঁজায় আসক্ত ছিলেন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ওইদিনই শাহ আলমকে ঢাকা মেডিকেলে প্রেরণ করে চিকিৎসক।

এদিকে এ দুর্ঘটনায় চরজানাজাত নৌপুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) লোকমান হোসেন বাদী হয়ে শিবচর থানায় ঘাটের ইজারাদার শাহ আলম খান, স্পিডবোটের দুই মালিক চান্দু মিয়া, রেজাউল হক ও চালক শাহ আলমের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা করেন। রোববার ঢাকা মেডিকেল থেকে চালক শাহ আলমকে ছাড়পত্র দিলে নৌপুলিশ তাকে গ্রেপ্তার দেখায়।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here