নোয়াখালীতে সৎ ছেলের দেয়া আগুনে পুড়ে মারা গেলেন মা: আটক ১

মুজাহিদুল ইসলাম সোহেল, নোয়াখালী প্রতিনিধি :: নোয়াখালী সদরের পারিবারিক কলহে সৎ ছেলের দেয়া পেট্রোলের আগুনে অগ্নিদগ্ধ হয়ে এক মায়ের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় পরিবারের আরো অন্তত ৪ জন দগ্ধ হয়েছে।

নিহত আসমা বেগম (৩৫) উপজেলার কালা দরাপ ইউনিয়নের রাম হরি তালুক গ্রামের ইসমাইল হোসেন বাবুল’র স্ত্রী।

সোমবার উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা নেওয়ার পথে সন্ধ্যা ৬টার দিকে ওই গৃহবধূর মৃত্যু হয়।

নিহতের মামা আমিনুর রসুল রাত সাড়ে ৭টার দিকে ফোনে গণমাধ্যমকর্মীদের আসমা বেগমের মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করেন।

অপরদিকে, দগ্ধ ২জনকে গুরুত্বর আহত অবস্থায় ঢাকা পাঠানো হয়েছে এবং আহত আরো ২জন নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার কালা দরাপ ইউনিয়নের রাম হরিতালুক গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। অগ্নিদগ্ধরা হচ্ছেন, অগ্নিসংযোগকারী কামাল উদ্দিন, প্রতিবেশি তারেক, সুমন ও মান্না।

সুধারাম থানার পরিদর্শক (তদন্ত) টমাস বড়ুয়া জানান, দগ্ধ নারীকে চিকিৎসার জন্য ঢাকা নেওয়ার পথে মারা যায় বলে খবর পেয়েছি।

সূত্রে জানা যায়, রাম হরিতালুক গ্রামের ইসমাইল হোসেনের প্রথম স্ত্রীর মৃত্যুর পর আসমা বেগমকে তিনি বিয়ে করেন। দ্বিতীয় স্ত্রীর সাথে ইসমাইলের প্রথম স্ত্রীর ছেলে মেয়েদের বনিবনা না হওয়ায় কিছুদিন আগে তারা বাড়ি ছেড়ে চলে যায়। সোমবার ইসমাইলের বড় ছেলে কামাল উদ্দিন ওই বাড়িতে গেলে সৎ মায়ের সাথে তার কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে ঘরের একটি কক্ষে পেট্রোল ঢেলে অগ্নিসংযোগ করেন কামাল। এ সময় কামালসহ কক্ষে থাকা তার সৎ মা ও প্রতিবেশিরা দগ্ধ হয়। দগ্ধ অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে প্রথমে ২৫০ নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য সৎ মা আসমা, কামাল ও তারেককে ঢাকা নেওয়ার পথে সৎ মা আসমা বেগমের মৃত্যু হয়।

পরিদর্শক (তদন্ত) টমাস বড়ুয়া বলেন, এ ঘটনায় অগ্নিসংযোগকারী কামালের শ্যালককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
0Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

করোনা মোকাবিলায় ২১টি প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা

স্টাফ রিপোর্টার::বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, কোভিড-১৯ দক্ষতার সাথে মোকাবিলা করে ঘুরে দাঁড়িয়েছে ...