ব্রেকিং নিউজ

নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মেঘনায় মাছ ধরার অপরাধে ১৮জেলেকে জেল-জরিমানা

নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মেঘনায় মাছ ধরার অপরাধে ১৮জেলেকে জেল-জরিমানাজহিরুল ইসলাম শিবলু, লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি :: নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মেঘনায় মাছ ধরার অপরাধে লক্ষ্মীপুরে ১৮জেলেকে জেল-জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত।

সোমবার গভির রাতে সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ফাহমিদা মুস্তফা ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে ৪জেলেকে এক মাস করে বিনাশ্রম কারাদন্ড ও ১৪ জেলের প্রত্যেককে তিন হাজার টাকা করে অর্থদন্ড করা করেন।

এর আগে মজুচৌধুরীরহাটের মেঘনা নদীতে মৎস্য বিভাগের নেতৃত্বে নৌ-পুলিশ ও কোষ্টগার্ড অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে। এ সময় ৬টি ইঞ্জিন চালিত মাছ ধরার নৌকা ও ৩০হাজার মিটার কারেন্ট জব্দ করা হয়।

কারাদন্ড প্রাপ্ত জেলেরা হচ্ছে কমলনগর উপজেলার মতিরহাট এলাকার কাসেম মাঝির ছেলে সাহাবুদ্দিন, মিলন মাঝির ছেলে নুর সোলায়মান, মৃত আবদুল হাসেমের ছেলে হোসেন আহমদ ও সিদ্দিক পাটওয়ারীর ছেলে আবু ছায়েদ।

সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফাহমিদা মুস্তফা জানান, মৎস্য রক্ষা ও সংরক্ষন আইন ১৯৫০ অনুযায়ী ৪জেলেকে এক মাস করে বিনাশ্রম কারাদন্ড ও ১৪জেলের প্রত্যেককে তিন হাজার টাকা করে অর্থদন্ড করা হয়। এছাড়া ৬টি ইঞ্জিন চালিত নৌকা ও ৩০হাজার মিটার কারেন্ট জাল জব্দ করা হয়।

উল্লেখ্য, জাটকা সংরক্ষন ও ইলিশের উৎপাদন বাড়ানোর জন্য ১মার্চ থেকে ৩০এপ্রিল পর্যন্ত ২মাস নদীতে সকল ধরনের জাল ফেলা ও মাছ ধরা নিষিদ্ধ ঘোষনা করা হয়েছে। লক্ষ্মীপুরের রামগতির আলেকজান্ডার থেকে চাঁদপুরের ষাটনল এলাকার ১‘শ কিলোমিটার পর্যন্ত মেঘনা নদীতে সকল ধরনের মাছ ধরা নিষিদ্ধ করেছে সরকার। এ ১‘শ কিলোমিটার মেঘনা নদী এলাকাকে ইলিশের অভয়াশ্রম হিসেবে ঘোষনা করা হয়েছে। এ সময় মাছ সংরক্ষন, আহরন, পরিবহন, বাজারজাত করন ও মজুদকরন নিষিদ্ধ করা রয়েছে। এ নিষেধাজ্ঞা অমান্য করলে জেল-জরিমানার বিধান রয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

তাসবিরুল ইসলাম

এফআর টাওয়ারের মালিক তাসবিরুল আটক

স্টাফ রিপোর্টার :: বনানী এফআর টাওয়ারের মালিক বিএনপি নেতা তাসবিরুল ইসলামকে আটক ...