নিউ ইয়র্কে সরকারের বিরুদ্ধে নতুন ষড়যন্ত্রের পরিকল্পনা!

নিউ ইয়র্কে সরকারের বিরুদ্ধে নতুন ষড়যন্ত্রের পরিকল্পনা!
বাংলা প্রেস, নিউ ইয়র্ক থেকে :: মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে বাংলাদেশ নিয়ে অভিযোগকারী প্রিয়া সাহাকে নিয়ে নতুন নাটকের পরিকল্পনা করেছেন ‘সাফাদি-জয়’ নাটকের নায়কেরা। সংঘবদ্ধ এ চক্রটি আবারো সোচ্ছার হয়ে উঠেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। তারা  প্রিয়া সাহাকে নিয়ে নতুন নাটকের পরিকল্পনা করেছেন। নিউ ইয়র্কে আত্মীয়ের বাড়িতে অবস্থানকারী প্রিয়া সাহার সাথে সাক্ষাতের জন্য দফায় দফায় চেষ্টা চালাচ্ছেন। ইতোমধ্যে জামাতপন্থী একটি টেলিভিশনের কর্মিরা তার সাথে দেখাও করেছেন।
২০১৬ সালে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির কতিপয় নেতার যোগসাজসে ইসরায়েলের ক্ষমতাসীন লিকুদ পার্টির নেতা মেন্দি এন সাফাদির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের বৈঠক নিয়ে ‘সাফাদি-জয়’ নাটক সাজিয়ে উক্ত টেলিভিশনে প্রচার করা হয়। প্রিয়া সাহাকে নিয়ে নতুন ষড়যন্ত্র বা নাটক তৈরি করা হচ্ছে বলে ধারনা করছেন প্রবাসের সচেতন ব্যক্তিরা।
ঐ সময় মেন্দি এন সাফাদির সাক্ষাত্কার নিয়েছিলেন বিএনপির এক কর্মি জ্যাকব মিল্টন। বিএনপি নেতা আসলামের সঙ্গে সাফাদির বৈঠকের খবর ফাঁস হওয়ার পর সাফাদি বিভিন্ন গণমাধ্যমে সাক্ষাত্কারে বলেছিলেন, বাংলাদেশে আর কারো সঙ্গে তাঁর সে রকম যোগাযোগ নেই। তিনি এর আগে মিস্টার রহমানের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। এই মিস্টার রহমান যে তারেক রহমান, এতে কোনো সন্দেহ ছিল না।
বিএনপি নেতারা লন্ডনে বসে সাফাদিকে নিয়ে একটা নাটক সাজিয়েছিলেন, সজীব ওয়াজেদ জয়ের সঙ্গে তাঁর নাকি বৈঠক হয়েছিল। সাক্ষাত্কারটিতে মিল্টন অনেকটা ইচ্ছা করেই সাফাদিকে প্রশ্ন করেছিলেন এর আগে আপনার সঙ্গে বাংলাদেশের কারো সাক্ষাৎ হয়েছে কি না? সাফাদি জবাবে বলেছেন হয়েছে। তাঁর এ ধরনের প্রশ্নে বোঝা যায় এটি ছিল একটি সাজানো নাটক।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে ও তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের মন্তব্য না নিয়ে ওয়াশিংটনে ইসরায়েলের একজন রাজনীতিবিদের সঙ্গে তাঁর তথাকথিত বৈঠকের এ খবরটি বিবিসি বাংলায় প্রকাশের জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন ব্রিটিশ ব্রডকাস্টিং করপোরেশন (বিবিসি)।
বিবিসির গ্লোবাল নিউজ করপোরেট কমিউনিকেশন ম্যানেজার পল রাসমুসেন এক বিবৃতিতে বলেছিলেন, ‘মি. ওয়াজেদের মন্তব্য না নিয়ে রিপোর্ট প্রকাশের জন্য আমরা দুঃখিত। এই ভুলের আলোকে আমরা আমাদের সম্পাদকীয় প্রক্রিয়া জোরদার করব।’
বিবৃতিতে বলা হয়, গত ২৮ মে ইসরায়েলের লিকুদ পার্টির সদস্য মেন্দি এন সাফাদির সাক্ষাত্কার প্রচারের আগে বিবিসি জয়ের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেছিল। ওই সাক্ষাত্কারে মেন্দি এন সাফাদি ওয়াশিংটনে জয়ের সঙ্গে বৈঠক করার কথা দাবি করেন।
পরের দিন জয় তাঁর ফেসবুক পেজে সাফাদির সঙ্গে বৈঠকের কথা অস্বীকার করে বলেন, এটি মিথ্যা ও বানোয়াট। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ বারবার সাফাদির এ দাবিকে বিএনপির সাজানো নাটক বলে উল্লেখ করে আসছে। আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফও এক বিবৃতিতে বলেন, লন্ডনে অবস্থানরত বিএনপি নেতারা তাঁদের সরকার উত্খাতের চক্রান্ত থেকে জনগণের মনোযোগ অন্যদিকে নিয়ে যেতে জয় ও সাফাদির বৈঠকের এই নাটক সাজিয়েছেন।
এবারে প্রিয়া সাহাকে নিয়ে নিউ ইয়র্কে জামাত-শিবিরের কর্মিসহ সেই ষড়যন্ত্রকারীরা আবারো সোচ্চার হয়ে উঠেছেন। ওই মহলটি ইতোমধ্যে প্রিয়া শার সঙ্গে কয়েক দফা সাক্ষাৎ করেছেন বলে জানা গেছে। যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশের কূটনৈতিক দুর্বলতা ও মেরুদন্ডহীন আওয়ামীলীগের অপতৎপরতার ফলে দেশ ও সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রকারীরা বারবার মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে বলে মনে করছেন সচেতন প্রবাসীরা।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

গ্রেনেড হামলার আপিল শুনানি এ বছরেই শুরু হবে: আইনমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার  :: আইনমন্ত্রী আনিসুল হক জানিয়েছেন, ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলার ঘটনায় ...