ইমা এলিস/ বাংলা প্রেস, নিউ ইয়র্ক ::

যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে প্রবাসী শেরপুর জেলা সমিতির জমজমাট পিঠা উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে। স্থানীয় সময় শনিবার (১৩ জানুয়ারি) নিউ ইয়র্ক সিটির ব্রঙ্কসের আল- আকসা পার্টি হলে অনুষ্ঠিত হয় উক্ত  পিঠা উৎসব। যুক্তরাষ্ট্রের বাংলা সংবাদমাধ্যম বাংলা প্রেস এ খবর জানিয়েছে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রবাসী শেরপুর জেলা সমিতির প্রধান উপদেষ্টা সাংবাদিক আবুল কাশেম। সংগঠনের সভাপতি নাহিদ রায়হান লিখনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ সিরাজুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত উক্ত সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন সংগঠনের সাবেক সভাপতি মামুন রাশেদ, কৃষিবিদ সৈয়দ মিজানুর রহমান, এডভোকেট যুবাইয়ের আহমেদ, জাতিসংঘ মিশনের সিনিয়র প্রসাশনিক কর্মকর্তা জাহাংগীর হোসাইন, সংগঠনের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও সাকসেস কনসাল্টিং ফার্মের সিইও আখতারুজামান এবং সংগঠনের উপদেষ্টা প্রকৌশলী প্রদোষ চন্দ্র চক্রবর্তী প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে চিতই পিঠা,তেলের পিঠা, ভাঁপাপিঠা, পাটিসাপটা, গোটা পিঠা, পায়েস পিঠা, নারুপিঠা, কলাপিঠা, আউলা খেসী, নারিকেল বরা পিঠা, খির পিঠা,তাল পিঠা,লবঙ্গ পিঠা, সন্দেশপিঠা, ঝাঁলপিঠা, ফুলপিঠা, চাপরিপিঠা, চিরাপিঠা, মোয়াপিঠা ও সেমাই পিঠাসহ প্রায় ৩৫/৩৬ প্রকারের পিঠা দিয়ে আমন্ত্রিত উপস্হিত সবাইকে আপ্যায়িত করা হয়। যারা পিঠা উৎসবে অংশগ্রহণ করেন তাদের সবাইকে পুরস্কৃত করা হয়। অনুষ্ঠানে সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন সাবেরা জামান কচি, রুমা জামান, মাসুদ মুক্তা, রেখা জামান ডলি, গৌতম চক্রবর্তী মিন্টু, ফেরদৌসী কাশেম, রাকিবুল হাসান রাসেল, হাজী শহিদুল ইসলাম শাহীন, জিনাত কামাল ও প্রফেসর শামীম আহমেদ প্রমুখ ।

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, পিঠা উৎসব গ্রাম বাংলার চিরাচরিত ঐতিহ্যবাহী গ্রামীণ সংস্কৃতি। যুগ যুগ ধরে এই সংস্কৃতি আমরা লালন করে আসছি । অগ্রাহায়ণ ও পৌষ মাসে ঘরে নুতন ফসল উঠার সময় গ্রামীণ জনগোষ্ঠি ধনী-গরীব সকল শ্রেনীর মানুষ নিজ নিজ বাড়িতে অথবা সম্মিলিত ভাবে এই উৎসবের আয়োজন করে থাকেন।

তিনি আরও বলেন, সত্তর ও আশির দশকে আমি যখন গ্রামে বসবাস করতাম তখন প্রাণভরে গ্রামীণ পিঠা উৎসবগুলো উপভোগ করেছি। বর্তমানে অতি আধুনিকতার যুগে আমরা তা হারিয়ে যেতে বসেছি। তিনি আরও বলেন, এই প্রবাস জীবনে নুতন প্রজন্মদের মাঝে আমাদের হারিয়ে যাওয়া সংস্কৃতিকে ধরে রাখতে চাইলে এই ধরনের পিঠা উৎসবের আয়োজন খুব প্রয়োজন। এত সুন্দর পিঠা উৎসব আয়োজন করার জন্য আয়োজক কমিটিকে তিনি ধন্যবাদ জানান।

নিউ ইয়র্ক বাংলাদেশ জাতিসংঘ মিশনের সিনিয়র প্রশাসনিক কর্মকর্তা জাহাংগীর হোসাইন তাঁর বক্তব্য বলেন, আমি কমিউনিটির অনেক পিঠা উৎসবে অংশগ্রহণ করেছি  কিন্তু আজকের মত এত বাহারী পিঠার আয়োজন কোথাও দেখিনি। তিনি শেরপুরের ভাবী-বোনদের হাতে তৈরি বাহারী পিঠার ভূয়ষী প্রশংসা করেন এবং তিনি ভবিষতে এই ধরনে পিঠা উৎসবে আমন্ত্রণ পেলে মিস করবেন না বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন। সংগঠনের সাবেক সভাপতি রাশেদ মামুন বলেন নুতন প্রজন্মকে আমাদের সংস্কৃতির সাথে সম্পৃক্ত রাখতে চাইলে প্রত্যেক বাবা-মাকে নিজে উদ্দেগ্যে হয়ে এ ধরনের অনুষ্টানে নিয়ে আসতে হবে। তিনি আরও বলেন যাঁরা সংগঠনের নেতৃত্বে আসতে আগ্রহী তাদেরকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

সারা দেশে সদ্য অনুষ্টিত সাধারন নির্বাচনে শেরপুর-১ আসন থেকে নুতন সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ায় সংসদ সদস্য ছানুয়ার হোসেন ছানুকে অভিনন্দন জানানো হয়। শেরপুরে রেল লাইন, পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ও মেডিকেল কলেজ স্হাপনের জন্য সরকার তথা নুতন সংসদ সদস্যের কাছে জোর দাবি জানানো হয়। অনুষ্ঠানের হৃদয় ছোঁয়া কবিতা আবৃত্তি করেন রানা রায়হান, প্রদোষ চক্রবর্তী  ও নাহিদ রায়হান লিখন। শেষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্টানে সংগীত পরিবেশন করেন শামীম রেজা, সিরাজুল ইসলাম,মুহাম্মদ এন রহমান, নিপা, অনুভা ও সায়মা প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here