মোঃ আব্দুল হাকিম, নাটোর প্রতিনিধি :: নাটোরের গুরুদাসপুরে আত্রাই ও তার শাখা নদীগুলোতে সরকারী নির্দেশনা অমান্য করে বাঁধ ও সোঁতিজাল দিয়ে অবাধে চলছে মাছ শিকার। একশ্রেনীর অসাধু ব্যাক্তি দলীয় প্রভাব খাটিয়ে ওই মাছ শিকার করছেন বলে জানান এলাকাবাসী।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, গুরুদাসপুর উপজেলায় আত্রাই নদীতে বিয়াঘাট ইউনিয়নের সাবগাড়ী বাজার পয়েন্টে, খুবজীপুর ইউনিয়নের কালাকান্দর এলাকায় , হরদমার নালে বাঁধ দিয়ে মাছ শিকার করা হচ্ছে। দেখে গেছে, প্রবাহিত আত্রাই নদীর উভয় তীরে বাঁশ,চাটাই ও নেট জালের সাহায্যে বাধ দিয়ে নদীকে সংকুচিত করা হয়েছে। নদীর স্বাভাবিক প্রবাহিত গতিকে বহুগুন বাড়িয়ে কৃত্রিম স্রোত সৃষ্টি করে উভয় পাশে শক্ত খুটির সাথে জাল পেতে মাছ শিকার করা হচ্ছে। আত্রাই নদীতে এভাবেই চলছে অবৈধ সোঁতিজাল পেঁতে মাছ শিকারের মহোৎসব। প্রতিবছর আত্রাই নদীতে এভাবে সোঁতিজাল দিয়ে মাছ শিকার করায় বর্ষা মৌসুমে আসা অনেক প্রজাতির মাছের প্রজনন কমে যাওয়ায় সেই মাছগুলো আজ বিলীন হওয়ার পথে।

এছাড়াও নদীর স্রোতের কারনে এবং নদী সংকুচিত হওয়ায় প্রায়ই নৌকা ডুবির মত ঘটনা ঘটছে । স্রোতের কারনে প্রতিবছর নদীর উভয় পাড়ে ভাঙ্গন দেখা দিলেও সোঁতি জালের মালিকরা এলাকার প্রভাবশালী হওয়ার কারনে ক্ষতিগ্রস’ দুই পাড়ের বসবাসকারী কেউ ভয়ে মুখ খুলতে সাহস পাননা। এলাকাবাসীর কাছে বক্তব্য জানতে চাইলেও কেউ বক্তব্য দিতে রাজি হননি।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এলাকার একাধিক ব্যাক্তি জানান,সাবগাড়ি এলাকায় সূঁতি রবি, আব্দুল মান্ন্‌ান ও তার সহযোগীরা, শাখা নদীতে (ক্যানেলে) রবি তার সহযোগী, দুলাল ও তার সহযোগী এবং কালাকান্দর এলাকায় রবিউল করিম ওরফে সূঁতি রবি ও তার সহযোগীরা ওই সোঁতিজালের ফাঁদ পেতে মাছ শিকার করছেন।

এ বিষয় জানতে চাইলে সোঁতির মালিকগনের পক্ষে সূঁতি রবি বিষয়টি অবৈধ শিকার করে বলেন, এলাকার প্রান্তিক জেলেদের সাথে নিয়ে ও প্রশাসনের কর্তাদের ম্যানেজ করেই মাছ শিকার করা হচ্ছে।তবে এলাকায় প্রভাব বিস্তার করে মাছ শিকার করার কথা এড়িয়ে যান।

উপজেলা সিনিয়র মৎস অফিস সুত্রে জানা গেছে তারা বিষয়টি অবগত আছেন। কমসংখ্যক লোকবলের কারনে সময়মত অভিযান পরিচালনা করা সম্ভব হয়না। তবে তারা অচিরেই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে অভিযান পরিচালনা করে সোঁতিজাল উচ্ছেদ করবেন বলে জানান।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ তমাল হোসেনের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তিনি ফোন রিসিভ করেন নাই।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here