ডেস্ক রিপোর্ট:: কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার নাওডাঙ্গা ইউনিয়নে বিতরণে বিলম্ব করায় নষ্ট হয়ে গেছে ভিজিডির চাল ও কৃষকদের জন্য বরাদ্দ পাট অধিদফতরের দেওয়া সার। চেয়ারম্যানের গাফিলতির কারণে সার ও ভিজিডির চাল গোডাউনে পরে থেকে নষ্ট হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন ইউপি সদস্যরা।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ইউনিয়ন পরিষদে অনুপস্থিত থাকায় স্থগিত হয়ে পড়েছে বিভিন্ন কার্যক্রম। গোডাউনে তালাবদ্ধ অবস্থায় পড়ে থাকে ভিজিডির চাল ও পাট অধিদফতরের দেওয়া কৃষকদের জন্য বরাদ্দ হওয়া সার। সঠিক সময়ে বিতরণ না প্রায় ৪০ বস্তা সার এবং ৩০ বস্তা ভিজিডির চাল নষ্ট হয়ে গেছে।

ইউপি সদস্যদের অভিযোগ, পাট বীজ বপনের সময় অধিদফতর থেকে কৃষকদের জন্য পাটের বীজ আসে। সেই বীজ বিতরণের কয়েক দিন পর আবার সার আসে। কিন্তু এই সার বিতরণ না করে ইউপি চেয়ারম্যান গোডাউনে রেখে দেন। এরপর থেকে চেয়ারম্যান অনুপস্থিত রয়েছেন। এখন পাট কেটে জলাশয়ে পচানো শুরু হয়ে গেলেও সেসব বিতরণ করা হয়নি।

গত রোববার (১১ জুলাই) ভিজিডির চাল বিতরণের জন্য গোডাউনের তালা খুললে দেখা যায় সেখানে সারের বস্তা নষ্ট হয়ে গেছে। বস্তার ভেতরে থাকা সব সার শক্ত হয়ে গেছে। ৩০ বস্তার মতো চালও নষ্ট হয়ে গেছে।

ইউপি সচিব শফিকুল ইসলাম বলেন, কিছুদিন ধরে চেয়ারম্যান অনুপস্থিত আছেন। গোডাউনে তালা লাগানো ছিল। চাবি ছিল চেয়ারম্যানের কাছে। এই কারণে চাল ও সার বিতরণ করতে পারিনি। রোববার চাবি নিয়ে এসে গোডাউন খুললে দেখা যায়, সব সার নষ্ট হয়ে গেছে এবং কিছু চালের বস্তাও পচে গেছে।

এ ব্যাপারে জানতে নাওডাঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান মুসাব্বের আলী মুসার সঙ্গে মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি কল রিসিভ করেননি। উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) সুমন দাস বলেন, বিষয়টি খোঁজখবর নিয়ে বলতে পারব।

 

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here