বিনোদন ডেস্ক:: “নরকের মধ্যে হলেও, হেঁটে যেতে হবে। থেমে গেলে চলবে না।” নিজের ছবির সঙ্গে হঠাৎ ক্যাপশনে এমনই লিখলেন অভিনেত্রী তথা সদ্য তৃণমূলে যোগ দেওয়া সায়নী ঘোষ। কিন্তু কেন হঠাৎ এমন অর্থপূর্ণ পোস্ট করলেন তিনি তা নিয়ে ইতিমধ্যেই জল্পনা শুরু হয়ে গিয়েছে।

বৃহস্পতিবার নিজেরই একটি সাদাকালো ছবি পোস্ট করে সায়নী লেখেন, আসল বিষয়টি হল, “নরকের মধ্যে হলেও, হেঁটে যেতে হবে। থেমে গেলে চলবে না। #NoStoppingEver” সম্প্রতি তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন সায়নী। আর তার পর থেকে একাধিক ট্রোলিং এর মুখে পড়তে হয়েছে অভিনেত্রীকে। তবে তৃণমূলে যোগ দেওয়ার আগেও একটি টক শোয়ে করা মন্তব্য নিয়ে গেরুয়া শিবিরের সঙ্গে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন তিনি। তৃণমূলে যোগ দিয়েও বিরোধী দলগুলির তরফ থেকে এসেছে একের পর এক ট্রোলিং। তাই জল্পনা এসবের জন্যই কি এমন অর্থপূর্ণ পোস্ট করেছেন অভিনেত্রী।

সায়নী জানিয়েছিলেন, সোশ্যাল মিডিয়ায় তার কাছে বিজেপি সমর্থকদের থেকে আসছিল একের পরে এক হুমকি। তার কিছুদিনের মধ্যেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত থেকে তৃণমূলের পতাকা তুলে নেন সায়নী। মমতার হাত থেকে ব্যাটন নিয়ে বলেন, “মহিলাদের আত্মসম্মান দিদি দিতে পারবে। ভোটের আগে বাংলা উট পাখির চোখ হতে পারে না। আমাদের ওপর বিশ্বাস রাখুন।”

বিজেপি নেতা তথাগত রায় তাঁর একটি পুরনো পোস্ট নিয়ে তাঁর বিরুদ্ধে এফআইআর-ও করেন। তাঁকে নিয়ে কুরুচিকর মন্তব্য করে বিতর্ক বাড়িয়েছিলেন বিজেপি নেতা সৌমিত্র খাঁ-ও। সেই সময়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পাশে পেয়ে যান সায়নী। মমতা সে সময়ে জনসভা থেকে বলেন, সায়নীর গায়ে হাত দিয়ে দেখাক।

সাহাগঞ্জে তৃণমূলের সভামঞ্চে সায়নীর সঙ্গেই তৃণমূলে যোগ দিয়েছিলেন অভিনেত্রী জুন মালিয়া, মানালি দে, অভিনেতা কাঞ্চন মল্লিক, পরিচালক রাজ চক্রবর্তী, ক্রিকেটার মনোজ তিওয়ারি। উল্লেখ্য এবার তৃণমূলের প্রার্থী হিসেবেও সায়নীকে দেখা যাবে বলে মনে করা

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here