ডেস্ক রিপোর্ট  : : ডানেডিনে প্রথম ওয়ানডেতে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে ট্রেন্ট বোল্টের করা ইনিংসের প্রথম ওভারের তৃতীয় বল উড়িয়ে মেরেছিলেন তামিম ইকবাল। হয়তো বোঝাতে চেয়েছিলেন দিনের বাকি সময়টা বেশ ভালোই যাবে। ওই ছক্কা হাঁকিয়েই দলের ও নিজের রানের খাতা খুলেছিলেন তামিম। কিন্তু ট্রেন্ট বোল্টের বিধ্বংসী বোলিং আর ব্যাটসম্যানদের দায়িত্বজ্ঞানহীন শটে দিনের সূর্যটা সেদিন মেঘে ঢাকা পড়েছিল।

তবে ক্রাইস্টচার্চে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে সেই ট্রেন্ট বোল্টকে উড়িয়ে না মারতে পারলেও বলকে মাটি কামড়ে সীমানা ছাড়া করেছেন। এরপর ম্যাচের দ্বিতীয় ওভারের চতুর্থ বলে লিটন দাস ফিরে গেলেও তামিম তার চরিত্র পাল্টাননি। খোলসেবন্দি সৌম্য সরকারকে নিয়ে অপর প্রান্তে ধীরে ধীরে সাবলীল ব্যাট করতে থাকেন তামিম।

প্রথম ওয়ানডের দিনে জন্মদিনকে সেভাবে রাঙাতে না পারলেও আজ তার ব্যাট কথা বলেছে। সেই ব্যাটে ভর করেই তামিম তুলে নিলেন ক্যারিয়ারের পঞ্চাশতম ওয়ানডে ফিফটি। দেশের ইতিহাসে তামিমই প্রথম ফিফটির মাইলফলক স্পর্শ করলেন। আর এ ফিফটির মাধ্যমে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশি হিসেবে সর্বোচ্চ ৫০ রানের বেশি ইনিংস খেলা ব্যাটসম্যানও হয়ে গেলেন তিনি। কিউইদের বিপক্ষে এটি তামিমের ষষ্ঠ অর্ধশত রানের ইনিংস। এত দিন ধরে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ৫টি পঞ্চাশ রানের ইনিংস ছিল তামিম ও সাকিবের। আজ সাকিবকে ছাড়িয়ে গেলেন তামিম।

২১২ ম্যাচের ওয়ানডে ক্যারিয়ারে তামিমের এটি ৬৩তম পঞ্চাশোর্ধ্ব রানের ইনিংস। এর মধ্যে ১৩টি রয়েছে সেঞ্চুরি। আর বাকি ৫০টি পঞ্চাশ রানের ইনিংস। সেঞ্চুরি কিংবা ফিফটির পরিসংখ্যানে বাংলাদেশের আর কেউই তামিমের ওপরে নেই।

এদিকে, তামিম যখন ৭৮ রানে, তখন স্ট্রাইক প্রান্তে নিশামের বল খেলেই দৌড় দিয়েছিলেন মুশফিকুর রহিম। তাতে সাড়া দিয়ে স্ট্রাইকিং প্রান্তে যেতে চেয়েছিলেন তামিম। তবে, তামিম নিরাপদে পৌঁছানোর আগেই স্টাম্প ভেঙে দেন নিশাম। ৭৮ রানে ফিরে যান তামিম ইকবাল। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ৩৫ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে ১৫৬ রান বাংলাদেশের। ২০ রানে অপরাজিত মুশফিক।

এর আগে ক্রাইস্টচার্চে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে টস ভাগ্য সহায় হয়নি তামিমের। দ্বিতীয় ওয়ানডেতেও সফরকারীদের ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক। কিন্তু সে আমন্ত্রণের প্রতিদান দিতে পারেনি বাংলাদেশ। ম্যাচের দ্বিতীয় ওভারের চতুর্থ বলেই ফিরে যান লিটন দাস। ম্যাট হেনরিকে পুল করতে গিয়ে স্কয়ার লেগে উইল ইয়াংয়ের হাতে ধরা পড়ে ফেরেন এ ওপেনার।

শুরুর এ ধাক্কা সামলে উঠেন অধিনায়ক তামিম ইকবাল। ওয়ান ডাউনে নামা সৌম্য সরকারকে নিয়ে গড়ে তুলেন ৮০ রানের জুটি। খোলসেবন্দি সৌম্য সরকারকে নিয়ে অপর প্রান্তে তামিম সাবলীল ব্যাট করতে থাকেন তামিম। কিন্তু ৪৬ বলে ৩২ রান করে মিচেল স্যান্টনারের বলে ল্যাথামের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন সৌম্য সরকার। তিনি যখন সাজঘরে ফেরেন দলের রান তখন ২০ ওভার শেষে ৮৪।

সিরিজ বাঁচানোর মিশনে বাংলাদেশ একাদশে এসেছে একটি পরিবর্তন। পেসার হাসান মাহমুদের জায়গায় খেলছেন অলরাউন্ডার সাইফউদ্দিন। অন্যদিকে, অপরিবর্তিত একাদশ নিয়ে মাঠে নেমেছে নিউজিল্যান্ড। সিরিজের প্রথম ওয়ানডে জিতে ১-০’তে লিড নিয়েছে কিউইরা।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here