ডেস্ক রিপোর্ট::  পেরুর প্রেসিডেন্ট দিনা বোলুয়ার্তের ভাইকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। দুর্নীতির নেটওয়ার্কে জড়িত থাকার অভিযোগে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এছাড়া দুর্নীতি নিয়ে তদন্তের কারণে দেশটির প্রেসিডেন্ট নিজেই চাপের মধ্যে রয়েছেন।

শনিবার (১১ মে) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি। এর আগে গত মার্চ মাসের শেষের দিকে প্রেসিডেন্ট দিনা বোলুয়ার্তের বাড়িতে অভিযান চালিয়েছিল দক্ষিণ আমেরিকার এই দেশটির পুলিশ ও সরকারি কর্মকর্তারা।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পেরুর চাপের মধ্যে থাকা প্রেসিডেন্ট দিনা বোলুয়ার্তের ভাইকে দুর্নীতির নেটওয়ার্কে জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। প্রেসিডেন্টের ভাইয়ের নাম নিকানোর রোলুয়ার্তে এবং প্রসিকিউটররা বলছেন, নিকানোর ঘুষের বিনিময়ে আঞ্চলিক নেতা এবং মেয়রদের তহবিল ছেড়ে দেওয়ার জন্য তার বোনের দেওয়া ক্ষমতা ব্যবহার করেছিলেন।

যদিও কোনও ধরনের অন্যায় কাজে জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করেছেন নিকানোর রোলুয়ার্তে।

বিবিসি বলছে, প্রেসিডেন্ট বোলুয়ার্তের আইনজীবী মাতেও কাস্তানেদা-সহ আরও ২১ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে। পেরুর পুলিশ ‘রোলেক্সগেট’ নামে পরিচিত দুর্নীতির তদন্তের অংশ হিসাবে প্রেসিডেন্ট দিনা বোলুয়ার্তের বাড়িতে অভিযান চালানোর কয়েক সপ্তাহ পর এই পরোয়ানা জারি করা হলো।

গত মার্চ মাসের শেষের দিকে চালানো ওই অভিযানের সময় কর্তৃপক্ষ এক ডজনেরও বেশি রোলেক্স ঘড়ির সন্ধান করে। মূলত বিলাসবহুল এসব ঘড়ি নিজের কাছে আছে বলে প্রেসিডেন্ট বোলুয়ার্তে ঘোষণা করেননি বলে অভিযোগ রয়েছে।

বিবিসি বলছে, প্রেসিডেন্ট বোলুয়ার্তের বড় ভাই ৬৪ বছর বয়সী নিকানোর বোলুয়ার্তের বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন স্থানে সরকারি পদে কর্মকর্তাদের নিয়োগের জন্য দুর্নীতি ও প্রভাব বিস্তারের পরিকল্পনার নেতৃত্ব দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে।

এছাড়া প্রসিকিউটররা প্রেসিডেন্টের আইনজীবী মাতেও কাস্তানেদাকে বোলুয়ার্তের বিরুদ্ধে তদন্তে হস্তক্ষেপ করার জন্য অভিযুক্ত করেছেন। কাস্তানেদা প্রেসিডেন্ট বোলুয়ার্তেকে দুর্নীতির তদন্তে পরামর্শ দিচ্ছেন। এই দুর্নীতি কেলেঙ্কারিকে ‘রোলেক্সগেট’ হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছে।

যদিও কোনও ধরনের অন্যায় কাজে জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করেছেন প্রেসিডেন্ট বোলুয়ার্তে।

বোলুয়ার্তে ও কাস্তানেদা উভয়েরই গ্রেপ্তার এবং তাদের বাড়িতে পুলিশ অভিযান স্থানীয় টেলিভিশনের ক্যামেরায় ধারণ করা হয়েছে।

সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম এক্সে দেওয়া এক পোস্টে পেরুর বিচার বিভাগ বলেছে, তারা ১০ ​​দিনের জন্য নিকানোর বোলুয়ার্তে এবং অন্যান্যদের ‘আটকে রাখার’ নির্দেশ দিয়েছে।

এদিকে শুক্রবার এক পাবলিক ইভেন্টে প্রেসিডেন্ট বোলুয়ার্তে তার ভাইয়ের গ্রেপ্তারের কথা উল্লেখ না করে বলেন, তিনি পেরুর বিচার ব্যবস্থার ওপর আস্থা রাখেন।

তিনি বলেন, ‘আমরা ছোটখাটো বিষয়ে বিভ্রান্ত হব না, আমরা ন্যায়বিচারে বিশ্বাস করি, দেশে যারা বিচার পরিচালনা করে আমরা তাদের যুক্তিসঙ্গততায় বিশ্বাস করি এবং সে ক্ষেত্রে সরকার গণতন্ত্রের আস্থা রাখার পাশাপাশি সংবিধানকেও সম্মান করবে।’

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here