গোলাম মোস্তাফিজার রহমান মিলন, হিলি প্রতিনিধি ::

হঠাৎ অস্থিতিশীল হয়ে উঠেছে পেঁয়াজের বাজার। এ অবস্থায় কোরবানির ঈদে বাজার স্থিতিশীল ও সরবরাহ স্বাভাবিক রাখতে ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানির অনুমতি দেওয়ায় দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরের আমদানিকারকরা এলসি খোলার কাজ শুরু করেছে।

আজ মঙ্গলবার বিকেলে ৬ টায় ভারত থেকে ১২টি পেঁয়াজ বোঝাই ট্রাকে এনি এন্টারপ্রাইজ নামের আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান ২শ ৯৯ টন পেয়াজ হিলি স্থলবন্দর দিয়ে আামদানি করেছে।

হিলি স্থলবন্দরের আমদানিকারক গ্রুপের সভাপতি হারুনুর রশিদ জানান,‘মন্ত্রণালয় আমদানির অনুমতিপত্র (আইপি) না দেওয়ায় গত ৫ মে থেকে দেশের সব স্থলবন্দর দিয়ে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ হয়। কোরবানির ঈদে সরবরাহ স্বাভাবিক রাখতে পেঁয়াজ আমদানির অনুমতি দিয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। ‘বন্দরের অনেক আমদানিকারক আইপি অনুমতি পেয়েছে। অনুমতি পাওয়ার পর থেকে বিভিন্ন ব্যাংকে এলসি করা হচ্ছে। আজ মঙ্গলবার বিকেলে থেকে পেয়াজ আমদানি শুরু হয়েছে। এতে পেঁয়াজের বাজার নিয়ন্ত্রণে আসবে, সেই সঙ্গে দামও কমবে।’

হিলি স্থলবন্দর উদ্ভিদ সংগনিরোধ কেন্দ্রের উপ-সহকারী সংগনিরোধ কর্মকর্তা ইউসুফ আলী জানান, বাণিজ্য মন্ত্রণালয় গত ৫ মে থেকে পেঁয়াজের আইপি ইসু বন্ধ ছিলো । সোমবার থেকে আমদানিকারকদের আইপি দেওয়া শুরু করেছে মন্ত্রণালয়।

এদিকে ভারত থেকে পেয়াজ আমদানি হবে এমন সংবাদে দেশী পেয়াজ কেজিতে ১০ টাকা কমেছে। গতকাল সোমবার যে পেয়াজ খুচরা বাজারে বিক্রয় হয়েছে ৫০ টাকা সেই পেয়াজ মঙ্গলবার বিক্রি হচ্ছে ৪০ টাকা দরে।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here