ডেস্ক রিপোর্ট::  বয়সের সঙ্গে হাড়ের সমস্যা বাড়তে থাকে। হাড়ের রোগগুলোর মধ্যে অস্টিওপোরোসিস অন্যতম। হাড়ের ঘনত্ব কমে যাওয়ার ফলে সাধারণত অস্টিওপোরেসিসের সমস্যা দেখা দেয়।

রজোনিবৃত্তির পর থেকে নারীদের মধ্যে অন্যান্য শারীরিক সমস্যার পাশাপাশি অস্টিওপোরোসিসের সমস্যা প্রবলভাবে দেখা দেয়। সাধারণত ক্যালসিয়াম এবং ভিটামিন ডি-এর অভাবে হাড়ের রোগ হয়। কিন্তু আপনি অস্টিওপোরোসিসে আক্রান্ত হয়েছেন কি না, তা বুঝবেন কী করে?

সামান্য চোট, আঘাতেই হাড় ভেঙে যায়। হাড়ের জোর কম। এগুলো অস্টিওপোরোসিসের লক্ষণ হতে পারে।

কোমরে ব্যথা নিত্যদিনের সঙ্গী। একটা বয়সের পর হাড়ের ঘনত্ব কমতে শুরু করলে এই ধরনের ব্যথা হতে পারে। দীর্ঘদিন ধরে এই ধরনের ব্যথা জানান দেয় অস্টিওপোরোসিসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি রয়েছে কি না।

শুধু মিষ্টিজাতীয় খাবার খেলেই দাঁত ক্ষয়ে যায় না। মাড়ি থেকে দাঁত আলাদা হয়ে যাওয়া, রক্ত পড়ার মতো সমস্যাও অস্টিওপোরোসিসের লক্ষণ হতে পারে।

অস্টিওপোরোসিস হলে পায়ের পাতার আকার অদ্ভুত ভাবে বিকৃত হয়ে যেতে পারে। হ্যামার টো, ফ্ল্যাট ফিটের মতো সমস্যা দেখলেই বোঝা যায়, অস্টিওপোরোসিসে আক্রান্ত হয়েছেন কি না।

মাটিতে পা রাখতে গেলেই গোড়ালির ভিতর পিন ফোটার অনুভূতি হচ্ছে। বেশ কিছু দিন পর আবার ব্যথাও হতে শুরু করেছে। চিকিৎসকেরা বলছেন, অস্টিওপোরোসিসে আক্রান্ত হলে এই লক্ষণ দেখা যায়।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here