ইউনাইটেড নিউজ ২৪ ডেস্ক ::

১০ মাসে (জানুয়ারি-অক্টোবর) পর্যন্ত নারী নির্যাতনের ৩ হাজার ১২৮টি ঘটনা ঘটেছে। এর মধ্যে ধর্ষণ হয়েছে ৮৯০টি, সংঘবদ্ধ ধর্ষণ ১৫৯টি, বাল্যবিয়ে ২১০টি এবং যৌতুকের কারণে হত্যা হয়েছে ৪০টি। আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ উপলক্ষ্যে নারী ও কন্যাশিশু নির্যাতনে এ তথ্য প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ।

জাতীয় প্রেস ক্লাবে বৃহস্পতিবার আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন অ্যাডভোকেসি অ্যান্ড লবির পরিচালক অ্যাডভোকেট মাকসুদা আক্তার। বক্তৃতা করেন বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের সভাপতি ফওজিয়া মোসলেম ও সাধারণ সম্পাদক মালেকা বানু। এ সময় নারী নির্যাতন প্রতিরোধের লক্ষ্যে ১৬টি সুপারিশ দেওয়া হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা বলেন, ১৫ নভেম্বর থেকে ১০ ডিসেম্বর পর্যন্ত নারী নির্যাতন পক্ষ ও বিশ্ব মানবাধিকার দিবস পালন করবে মহিলা পরিষদ। এ সময়ে নানা কর্মসূচি পালন করা হবে।

মহিলা পরিষদ থেকে বলা হয়েছে, দেশের ১৩টি জাতীয় দৈনিক পত্রিকা পর্যালোচনা করে নারী নির্যাতনের এসব তথ্য পাওয়া গেছে। তবে এগুলো পূর্ণাঙ্গ কোনো তথ্য নয়। বাস্তব অবস্থার সামান্য চিত্র মাত্র। প্রতিবেদনে বলা হয়, ১০ মাসে শ্লীলতাহানির ঘটনা ঘটেছে ১৩৮টি।

এছাড়া যৌন নিপীড়ন ৭৭টি, এসিড দগ্ধ ১৭টি এবং হত্যার ঘটনা ঘটেছে ৩৭৩টি। অন্যদিকে ২০২০ সালের পুরো বছরে নারী নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে ৩ হাজার ৪৪০টি। এর মধ্যে ধর্ষণের ঘটনা ছিল ১ হাজার ৭৪টি। সংঘবদ্ধ ধর্ষণ ২৩৬টি, ধর্ষণের পর হত্যা ৩৩টি এবং হত্যার ঘটনা ঘটেছে ৪৬৮টি।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here