দম ফাটানো ১০৫ পর্বের নাটক ‘চোরকাব্য’

নজরুল ইসলাম তোফা:: ‘চোর` শব্দটি সবার কাছে খুবই পরিচিত। মানুষের জীবদ্দশায় চোরের খপ্পরে সর্ব শ্রেণীর মানুষ কোন না কোন ভাবেই পড়ে। ঘুনে ধরা সমাজে বিভিন্ন ধাঁচের চোর রয়েছে। বলা যায়, কেউবা হয়তো সিঁধেল চোর, কেউবা ছিঁচকে চোর।

সমাজের কোন না কোন দুষ্ট প্রকৃতির চোর মানুষ গুলো হয় প্রভাবশালী ও সম্পদশালী। সত্যিকারের জমিদাররা সমাজের সবচেয়ে বড় চোর। এমন এই ভাবনায়, একটি গল্প নিয়ে নির্মিত শিমুল সরকারের দীর্ঘ ১০৫ পর্বের ধারাবাহিক নাটক “চোরকাব্য”।

নাটকে প্রধান দুটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন এ টি এম শামসুজ্জামান এবং মামুনুর রশীদ। `চোরকাব্য` নাটকের মুখ্য চরিত্র গুলোতেই সবাই “চোর”। পুরো গল্পটিই হাস্যরসাত্মক ভঙ্গিতে উপস্থাপন করেছেন পরিচালক। নাটকটিতে দেখা যাবে, সারাজীবন চুরি করে কৌশলেই জমিদারে পরিণত হয়েছে এটিএম শামসুজ্জামান। তিনি কোনও ধরনের অপ্রীতিকর পরিস্থিতির সৃষ্টি না করেই অন্যের সম্পদ নিজের করে নেয়াটা একধরনের প্রধান নেশা।

স্ত্রী চিত্রলেখা গুহ রূপসচেতন, মেয়ে শশী বাবার মতোই এক বড় চোর, ছেলে সাজু খাদেম চিরকুমার হলেও হয়ে যায় এক সময় বিয়ে পাগল। কিন্তু তার বিয়ে কখনো হয় না, কারণ চোরের ছেলের কাছে কোন মেয়ে রাজি হয় না বা মেয়ের পরিবার বিয়ে দিতে সম্মতি জানান না। এভাবেই বিভিন্ন মজার মজার ঘটনার কাহিনী নিয়ে “চোরকাব্য” নাটকের গল্প এগোতে থাকে।

দম ফাটানো ১০৫ পর্বের নাটক ‘চোরকাব্য’নাটকের অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে আছেন, মামুনুর রশিদ, কচি খন্দকার, প্রাণ রায়, আ খ ম হাসান, ডা. এজাজ, সঞ্জীব আহমেদ, বিথী, শবনম পারভীন, আনিসুল হক বরুণ, ফরহাদ শিশির এবং নজরুল ইসলাম তোফা সহ আরও অনেকে। নাটক সম্পর্কে পরিচালক শিমুল সরকার জানান, গল্পের একেবারে প্রাথমিক পর্যায়ে যখন জনপ্রিয় অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামানের সঙ্গে আলোচনা করতে যান তখন গল্প ভাবনায় তিনি আন্তরিকভাবে পরিচালক শিমুল সরকারকে সহযোগিতা করেছেন।

বলা যায় গল্পের সঙ্গে তিনি একাত্মবোধ প্রকাশ করেছেন। ব্যক্তিগত ভালো লাগা এবং ভালবাসার জন্যই তার এই রূপ সহযোগিতা পাওয়া সম্ভব হয়েছে বলেই কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করলেন নাট্যকার এবং চোরকাব্যের নির্মাতা শিমুল সরকার।

অনন্ত ক্রিয়েটিভস এর এই ধারাবাহিকটি যৌথভাবে লিখছেন শিমুল সরকার ও ফরহাদ লিমন। আসলে গল্পটি মূলত চোরদের নিয়েই। পরিচালক জানালেন এমন গল্প ভাবনায় এটিএম শামসুজ্জামানের একটি পরামর্শ ছিল তা হলো, এই নাটকের শিরোনাম হোক চোর চরিতানম বা চোরের মতোই কিছু। পক্ষান্তরে নির্মাতার যৌথ মতামতের ভিত্তিতেই তুলনা মূলক এই কঠিন সংস্কৃত শব্দ চরিতানমটিকে বাদ দিয়ে ‘চোরকাব্য’ চুড়ান্ত করা হয়েছে। তবে চোরের চরিত্র বিশ্লেষণই এই নাটকের ঘটনাটি মুল উপজীব্য।

শিমুল সরকারের রচনা ও পরিচালনায় ধারাবাহিক নাটকটি বাংলাদেশের ইতিহাসে প্রথম অনলাইন পে চ্যানেল লাভ টিভিতে (lovetv24.com) প্রচারিত হচ্ছে। জনপ্রিয় এই দীর্ঘ নাটকটি দু’এক দিন পর পর ইউটিউব এবং লাভ টিভিতে আপলোড হচ্ছে। ১০৫ পর্বের ধারাবাহিক চোরকাব্য নাটক যা কিনা সারা দেশব্যাপি ঝড় তোলেছে।

বড় ধরনের চমক দিতে নাট্যকার, পরিচারক ও লাভ টিভির প্রতিষ্ঠাতা শিমুল সরকার এমাসেই তিনটি নাটক একই সঙ্গে শুটিং স্পটে নামছেন। তিনাকে তিনটি নাটকের নাম জিজ্ঞেস করা হলে নাম উল্ল্যেখ না করেই নজরুল ইসলাম তোফাকে জানান, (lovetv24.com) লাভ টিভিতেই তা দেখানো হবে এবং প্রচার হওয়ার আগ মুহুর্তে ঘটা করেই জানাবেন।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here