ডেস্ক রিপোর্ট::  তুরস্কের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে ভয়াবহ দাবানলে কমপক্ষে ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এই ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও বহু মানুষ। এছাড়া এই দাবানলে শত শত প্রাণীরও মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার (২২ জুন) রাতে এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তুরস্কের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের কুর্দি অঞ্চলে ভয়াবহ দাবানলে অন্তত ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম এক্স-এ মৃতের সংখ্যা ঘোষণা করেছেন তুর্কি স্বাস্থ্যমন্ত্রী ফাহরেটিন কোকা।

তিনি বলেছেন, দিয়ারবাকির এবং মারদিন প্রদেশে আগুন ছড়িয়ে পড়েছে এবং এতে আরও ৭৮ জন আহত হয়েছেন।

এছাড়া গত বৃহস্পতিবার থেকে এই দাবানল শুরু হয় এবং শুক্রবার পর্যন্ত আগুনে কয়েকশ প্রাণী মারা গেছে।

গত সপ্তাহে তুরস্কের বেশিরভাগ অংশে তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের ওপরে পৌঁছে গিয়েছিল। আর এর জেরেই দেশটির বন ও বিভিন্ন এলাকা শুকিয়ে গেছে।

অবশ্য সর্বশেষ এই আগুন লাগার কারণ অনুসন্ধান চলছে। তুরস্কের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আলি ইয়ারলিকায়া এই দাবানল সৃষ্টির জন্য ‘খড় পোড়ানোকে’ দায়ী করেছেন। মূলত ফসল কেটে নেওয়ার পর মাটিতে থেকে যাওয়া ফসলের অবশিষ্টাংশে ইচ্ছাকৃতভাবে আগুন দেওয়া হয়ে থাকে।

অবশ্য তুরস্কের দক্ষিণাঞ্চলে দাবানলের ঘটনা এটিই প্রথমবার নয়। এর আগে ২০২১ সালের গ্রীষ্মে আগুনের লেলিহান শিখা উপকূলীয় রিসোর্টগুলোকে ধ্বংস করে দিয়েছিল এবং সেসময় ৯ জনের মৃত্যুও হয়েছিল।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here