মেছতা ব্রণ সাধারণত গালের দুই পাশে দেখা যায়। শুরুতে দাগ হালকা থাকলেও ধীরে ধীরে গাঢ় বাদামি হয়।  বয়স বাড়লেও ত্বকের কোষ নতুনভাবে গঠিত হতে পারে না তাই  ব্রণ সমস্যা সমাধানে প্রয়োজন বয়স নিয়ন্ত্রণমুলক চিকিৎসা। এটি ত্বককে ৯০ ভাগ ঠিক করে দেয়। সাইট্রিক অ্যাসিড এবং গাইক্লোলিক সলিউশনে রয়েছে অ্যান্টি-এজিং উপাদান।

অন্যদিকে সাইট্রিক অ্যাসিড অত্যন্ত ক্ষমতাসম্পন্ন অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। তাই এসব অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ত্বকের উজ্জ্বলতা ও  রক্ত চলাচল বাড়ায় । এর ফলে ব্রণ আর বাড়ে না।  ব্রণের দাগ হালকা করতে ফেসিয়াল ব্যবহার করা যেতে পারে। এক্ষেত্রে অর্গ্যানিক ফেসিয়াল খুবই কার্যকর। ফল, সবজি এবং বিভিন্ন ঔষধি ফলের নির্যাস দিয়ে বানানো হয় ফেসিয়াল। বাড়িতে  তৈরি করতে না পারলে পার্লারে যাওয়া ভালো। তবে এসব ফেসিয়াল নিয়মিত ব্যবহার করতে হবে।

মেছতা বা ব্রুণের চিকিৎসা অনেক সময় বাড়িতে করা সম্ভব হয়না। এক্ষেত্রে বিউটি পার্লারে কয়েক মাস সময় নিয়ে চিকিৎসা করতে হবে। তবে  না  জেনে  কোন ক্রিম বা  লোশন ব্যবহার করা অনুচিত। মেছতা বা ব্রণ থাকলে  বেশি রোদ বা আগুনের তাপের কাছে যাওয়া ঠিক নয়।  কেননা রৌদ্রের তাপ ব্রণের সংক্রামক বাড়ায়।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here