এ মাটি আমার

-তাহমিনা কোরাইশী

 

আমি তো মাটি চিড়ে তোমার রক্তের ঘ্রাণ নিয়েছি
সারা অঙ্গে জড়িয়ে শীতল পাটির অনুভবে
তোমাকে পাবো বলেই ভালোবাসার পরাকষ্ট প্রমাণ দিয়েছি
তোমার সম্ভ্রমটুকু লুটিয়ে পড়ার আগেই
আমার বিন্দু বিন্দু রক্তে সিন্ধু হয়ে উঠেছিল
নিজের অধিকারের দাবিতে সংগ্রামী স্বৈরাচারী আমি।

চারিদিকে লাশ পড়ে থাকা শহর বন্দর গ্রাম
নদ-নদী, ঝোপ-ঝাড়, শালবন চষে বেড়িয়েছি
রণাঙ্গনে যোদ্ধা আমি নিদ্রহীন শত রজনী পেড়িয়ে এসেছি
রাইফেল, বেয়নেট, এসএলআর, ডিনামাইট বরুদ বোমার সরঞ্জাম
কাঁধে নিয়ে দূর দূরান্ত পথ হেঁটেছি
নারী তোমার সম্ভ্রম হারিয়েও তুমি দীপ্ত পদক্ষেপে
রণক্ষেত্রটি দখলে নিয়েছো
মুক্তিযুদ্ধে পিছিয়ে পড়নি তুমিও
জয় পরাজয় উত্থান পতনের দামামা চলছিল বেজে
নিপীড়িত নির্যাতিত অধিকার বঞ্চিত আমরই জেগে উঠেছিলাম
রূঢ়-ভয়ংকরী প্রতিবাদী সত্ত্বায়।

নিজ গৃহে পরবাসী জীবনের সমাপনী যুদ্ধে
মরণের পথটি সহজ হলেও প্রতিরোধ প্রতিবাদে টিকে থাকাও কম নয়
সদা জাগরত নির্ভীক সৈনিক আমি
ভালোবাসার জয় চিরন্তন নিজস্ব স্বকীয়তার উদ্ভাসিত
কালজয়ী ইতিহাস আমাদের মহাকালের খের খাতায়
ধ্বংস লীলার মাঝে জয়ের পতাকা ওড়ানো এতোটাই সহজ ছিল না
মুক্তিসেনারা দুর্বার দুর্মর প্রতিরোধে ছিনিয়ে এনেছে জয়ের তাবিজ
গাঢ় প্রখর সোনালী আভায় এক পৃথিবী সুখ আমার।
এই বুক জুড়ে আনন্দ ধ্বনি জয় বাংলা শ্লোগানে শ্লোগান
পেয়েছি লাল সবুজের এক মুঠো জমিন
আকাশ সমান শ্বাস টেনে চিৎকার করে বলেছি
মা তোমায় ভালোবাসি জন্ম-জন্মান্তর…
মুক্তিযুদ্ধের রক্তবীজে উর্বর ফসলি জমি তুমি
তুমি আমার অহংকার।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here