মোঃ আল জাবেদ সরকারঃ ভোলার জনগণের পক্ষ থেকে স্বাস্থ্য সুরক্ষা এবং রাজস্ব আয় বৃদ্ধির জন্য ২০২১-২০২২ অর্থ বছরে সুনির্দিষ্ট করারোপের মাধ্যমে সকল তামাক জাত পণ্যের মূল্য বৃদ্ধির প্রস্তাব।

বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন অব দি রুরাল পুয়র- ডর্‌প এর উদ্যোগে ভোলা সদর উপজেলার মোট প্রায় ৪৩০৫২০ জন মানুষের পক্ষে ১৩টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যানগন জনসাধারণের স্বাস্থ্য সুরক্ষার তামাক কর বৃদ্ধির জন্য একটি ডিও লেটার মাননীয় অর্থমন্ত্রী বরাবর প্রেরণ করেন। উক্ত ডিও লেটারে তামাকের বিভিন্ন ক্ষতিকর দিক তুলে ধরা হয়। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো

“বাংলাদেশে এখনও প্রায় ৩ কোটি ৭৮ লক্ষ প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ তামাক (ধুমপান ও ধোঁয়াবিহীন) ব্যবহার করেন। ধূমপান না করেও প্রায় ৩ কোটি ৮৪ লক্ষ প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ বিভিন্ন পাবলিক প্লেস, কর্মক্ষেত্র ও পাবলিক পরিবহণে পরোক্ষভাবে ধূম পানের শিকার হন (গ্যাটস্ ২০১৭)। বাংলাদেশে প্রতি বছর  তামাক ব্যবহারের কারণে ১,৬১,০০০ এর অধিক মানুষ মৃত্যুবরণ করে (টোব্যাকো এটলাস ২০২০) পঙ্গুত্ব বরণ করে বছরে আরও প্রায় ৩ লাখ ৮২ হাজার মানুষ ( গ্যাটস ২০০৯) । ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে তামাক ব্যবহারের অর্থনৈতিক ক্ষতির (চিকিৎসা ব্যয় এবং উৎপাদনশীলতা হারানো) পরিমাণ ছিল ৩০ হাজার ৫৬০ কোটি টাকা এবং তামাক থেকে প্রাপ্ত কর আদায় ২২হাজার ৮১০ হাজার কোটি টাকা।“

তারা আশা করেন তামাক কর বৃদ্ধি পেলে তামাকের ব্যবহার হ্রাস পাওয়ার পাশাপাশি ২০৪০ সালের মধ্যে তামাকমুক্ত বাংলাদেশ অর্জনের পথ সুগম হবে।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here