ব্রেকিং নিউজ

তানোরে বাবার উপর প্রতিশোধ নিতেই শিশুকে কুপিয়ে হত্যা

রাজশাহীর তানোরে তানোরে বাবার উপর প্রতিশোধ নিতেই ববার সামনে ৪ বছরের শিশু কন্যাকে কুপিয়ে হত্যা করার কথা স্বীকার করেছে ঘাতক। অপর দিকে নিহত ওই শিশুর লাশ ময়না তদন্ত শেষে রোববার সকালে নামাজে জানাযা শেষে পারিবারিক কবস্থানে দাফন করা হয়েছে। এদিকে আটককৃত আমজাদ আলীতে ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করে গতকাল রোববার সকালে তাকে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে। হত্যার ঘটনার বিষয়ে গতকাল তানোর থানা পুলিশ বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করেছেন এবং ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শীদের কাছ থেকে স্বাক্ষী গ্রহন করেছেন। তবে এ মামলার অপর আসামী ঘটনার মুল হোতা ও পরিকল্পনাকারী ৭নং ওয়ার্ড কলমা ইউপি’র সদস্য প্রভাবশালী ব্যবসায়ী শফিকুল ইসলাম ঘটনার পর থেকেই পলাতক থাকায় তাকে গ্রেপ্তার করতে পারেনী পুলিশ। অপর দিকে এ মামলা থেকে বাচানোর জন্য ক্ষমতাসিন দলের জৈনক যুব নেতা ইউপি চেয়ারম্যান উঠেপড়ে লেগেছে সেই সাথে প্রশাসনের উপর মহলে জোর ততবির শুরু করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। সেই সাথে ওই নেতার ছত্র ছায়ায় শফিকুল গাঁ ঢাকা দিয়েছে বলেও এলাকায় অভিযোগ উঠেছে। এঘটনায় ওই গ্রামে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

উলেখ্য, গত শনিবার দুপুরে জমিজমা সংক্রান্ত জের হিসাবে তানোর উপজেলার কলমা ইউপি’র নড়িয়াল গ্রামের জিয়াউর রহমান নয়নের পোনে চান বছরের এক শিশু কন্যাকে নিসৃংশভাবে কুপিয়ে হত্যা করে একই গ্রামের মৃত তাহার আলী মন্ডলের পুত্র আমজাদ আলী (৪০)। এসময় ঘাতককে গ্রামবাসি হাতে নাতে ধরে গনধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। এঘটনায় ওই শিশুর পিতা জিয়াউর রহমান নয়ন বাদি হয়ে ঘাতক আমজাদ আলী ও ঘটনার মুল হোতা ও পরিকল্পনাকারী শফিকুল ইসলামকে আসামী করে গত শনিবার তানোর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার বিবরণ, পুলিশ ও ঘটনাস্থলে সরেজমিনে গিয়ে এলাকাবাসির সাথে কথা বলে জানা গেছে, তানোর উপজেলার কলমা ইউপি’র নড়িয়াল গ্রামের ঘাতক আমজাদ আলী ও ঘটনার মুল হোতা ও পরিকল্পনাকারী শফিকুল ইসলামের সাথে দীর্ঘদিন ধরে একই গ্রামের জিয়াউর রহমান নয়নসহ তার আত্নীয়দের জমিজমা নিয়ে দন্দ চলে আসছিল। এরই সুত্র ধরে গত প্রায় দুই মাস আগে ওই একই গ্রামের ভূমিহীন আফসার আলী, মফেজ, হাচেন আলী ও সালামসহ ৩২টি ভুমিহীন পরিবার সরকারের ওই সম্পত্তিতে বাড়ি-ঘর তৈরি করে বসবাস শুরু করেন। ভূমিহীনদের বাড়ি তৈরি করতে নড়িয়াল গ্রামের ওই শিশুটির বাবা জিয়াউর রহমান নয়ন ও তার আত্নীয়রা সহযোগিতা করেছেন মর্মে আমজাদ ও শফিকুল নয়নের সাথে আবারো শত্রুতা তৈরি করেন। এরই প্রতিশোধ নিতে নড়িয়াল গ্রামের শফিকুলের কুপরামর্শে আমজাদ ধারালো ধাসুয়া হাতে নিয়ে গত শনিবার দুপুর সোয়া দুইটার দিকে নয়নের একমাত্র তিন বছর দশ মাসের শিশু কন্যা ফাহমিদা আকতার মিমকে বাড়ির পার্শ্বে খৈল্যান থেকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে বাড়ির পার্শে আমবাগানে হাসুয়া দিয়ে শিশুটির হাট-পায়ের আঙ্গুল কেটে মাথায় কোপ মেরে মগজসহ ক্ষত-বিক্ষত করে হত্যা করে। এসময় নয়নের বড় ভাই ছুটে এলে আমজাদ তাকেও আক্রমনের চেষ্টা করে। পরে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে ওই শিশু কন্যাকে উদ্ধারের জন্য ছুটে এলে ঘাতক ওই শিশুটিকে হাসুয়া দিয়ে কুপিয়ে আহত করে পালানোর চেষ্টা করে এসময় গ্রামবাসি শিশুটিকে চিকিৎসার জন্য ভুটভুটি যোগে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে শিশুটি মারা যায়। মিমের মৃত্যুর খবরে গ্রামের লোকজন আমজাদকে ধরে গণপিটুনি দিয়ে আটক করে রাখে পরে পুলিশে খবর দেয়া হলে পুলিশ আমজানকে গ্রেপ্তার করে এসময় ঘাতক আমজাদের অবস্থা আশংকা জনক দেখে পুলিশ হেফাজতে তানোর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়েছে। এব্যাপারে তানোর থানা  অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ইসমাইল হোসেন জানান, ঘটনাটি নিয়ে তানোর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে গতকাল বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ ও স্বাক্ষীদের জবানবন্দী রেকর্ড করা হয়েছে এবং হত্যাকারী আমজাদকে  রোববার জেলহাজতে প্রেরন করা হয়েছে এবং ঘটনার মুল হোতা শফিকুলকে গ্রেপ্তারের জন্য চেষ্টা চলছে।

ইউনাইটেড নিউজ ২৪ ডট কম/মেহেদী হাসান/রাজশাহী

Print Friendly, PDF & Email
0Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

শুরু মহান বিজয়ের মাস

ডেস্ক রিপোর্ট :আজ থেকে শুরু হচ্ছে মহান মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে অর্জিত বিজয়ের মাস ...