মালিক উজ জামান, যশোর প্রতিনিধি ::

রাজধানী ঢাকা খিঁলগাও সিপাহীবাগের দেলোয়ার হোসেন ফরিদের বিরুদ্ধে মঙ্গলবার যশোরের আদালতে এক কোটি টাকার মানহানি মামলা হয়েছে। বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্ধে আমলী আদালত যশোরে মামলাটির বাদি যশোর শহরের বারান্দীপাড়া ২নং কলোনীর বীর মুক্তিযোদ্ধা হেলাল উদ্দিন। মামলা নম্বর ১৭৭৬/২২। বাদি ঘটনাস্থল উল্লেখ করেছেন আপন ছোট ভাই নাজমুল আলমের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ‘রোজা ফার্নিচার।

ঘটনার তারিখ ৩১ আগষ্ট বিকাল ৫ টা। বাদি বারান্দীপাড়ার বীর মুক্তিযোদ্ধা মৃত আব্দুর রউফের পুত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা হেলাল উদ্দিন (৪২)। আসামি একজন ভূয়া মুক্তিযোদ্ধা বাদির আর্জিতে বর্নিত তথ্য এটি। বিপরীতে আসামি যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাইফুল ইসলামের নিকট পেশকৃত একটি অভিযোগ পত্রে মামলার বাদিকে ভূয়া মুক্তিযোদ্ধা দাবি করেছেন।

এর আগে ১৪/০৯/২০০১ তারিখে বাদির কন্যা নাসরিন জান্নাতের বিবাহ হয়। তাদের দুটি সন্তান রয়েছে। এরা হচ্ছে ফাইয়াজ হোসেন ইয়াম (১৬) ও নুসাইবা হোসেন (৯)। কিন্ত দেলোয়ার হোসেন ফরিদ যৌতুক দাবি করিলে বাদির কন্যা বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল কোতয়ালি আদালতে একটি মামলা করেন যার নম্বর সি আর ১৩০২/২২।

ধারা যৌতুক নিরোধ আইনের ৪ ধারায় ঐ মামলায় ৩১ আগষ্ট আদালতে আত্মসমর্পণ করিয়া আসামি জামিন লাভ করেন। একই দিনে আপোষ মীমাংষার জন্য বসাবসি হইলে আসামি সেখানে বাদিকে ভূয়া মুক্তিযোদ্ধা দাবি করে হুমকি ধামকি দেয়। এসব মানহানিকর বক্তব্যে বাদির কোটি টাকার মানহানি হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here