ডিআইইউতে অনলাইন পরীক্ষা শুরু ২৩ জুন 

 মোঃ শাহীনডিআইইউ প্রতিনিধি :: সারাদেশে লকডাউন পরিস্থিতির কারনে বিশ্ববিদ্যালয় গুলোতে সরাসরি ক্লাস ও পরীক্ষা বন্ধ রয়েছে। শিক্ষার্থীদের সেশনজট ও পরীক্ষার নানাবিধ সমস্যা এড়াতে ২৩ জুন  থেকে ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে শুরু হচ্ছে চলতি সেমিস্টারের অনলাইন পরীক্ষা।
সোমবার (২২ জুন)  ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির  উপাচা‌র্য অধ্যাপক ড. কে এম মোহসিন অনলাইন প্রেস ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।
উপাচার্য জানান, দেশের এই সংকটময় মুহুর্তে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের সকল নিয়ম মেনেই আমাদের পরীক্ষা গ্রহন করা হবে৷
অনলাইন পরীক্ষার সংক্রান্ত প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, দেশের এই ক্রমবর্ধমান সংকটকে বাঁধা হিসেবে না নিয়ে আমাদের শিক্ষার্থীদের সেশনজটের কথা মাথায় রেখেই অনলাইন পরীক্ষার ব্যবস্থা করেছি৷তিনি বলেন – ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের পরীক্ষা শুরু ২৩ জুন, ইংরেজি বিভাগের পরীক্ষা শুরু হবে ২৪ জুন এবং সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের পরীক্ষা শুরু হবে ২৬ জুন।
তিনি টিউশন ফির ব্যাপারে বলেন, বর্তমান সংকটকালীন সময়ে অনেক শিক্ষার্থী আর্থিক সংকটে আছে। তাদেরকে টিউশন ফি আদায়ে কোন প্রকার চাপ সৃষ্টি করা হচ্ছে না। যার যতটুকু সামর্থ্য আছে সে ততটুকু  পরিশোধ করবে।যারা পুরো টিউশন দিতে পারবে তারা পুরোটা পরিশোধ করবে। যারা ৫০ভাগ দিতে পারে তারা ৫০ভাগ পরিশোধ করবে। আর যারা এখন একেবারে দিতে পারছে না তারাও ইমেইলের মাধ্যমে আবেদন করে পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবে। বাসায় বসে মোবাইলে বিকাশে  বা অনলাইনে এক্সিম ব্যাংক বা ডাচ্ বাংলা ব্যাংকের মাধ্যমে পরিশোধ করতে পারবে। তবে টিউশন ফি দিতে না পারলেও কোন শিক্ষার্থীকে পরীক্ষায় বাধা দেয়া হবে না। সবাই পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করতে পারবে।
এ প্রসঙ্গে ইংরেজি বিভাগের চেয়ারম্যান এস জুবাইর আল আহমেদ জানান, অনলাইন পরীক্ষা নিয়ে ইউজিসির থেকে একটা ইতিবাচক নির্দেশনা দিয়েছেন। শিক্ষার্থীরা যাতে  সেশনজটে না পড়ে সেজন্যই অনলাইনে পরীক্ষা নেয়ার নির্দেশনা দিয়েছে ইউজিসি । সকল শিক্ষকরা এ বিষয়ে একমত হয়েছেন এবং শিক্ষার্থীদের কাছ থেকেও বেশ ইতিবাচক  সাড়া পাওয়া যাচ্ছে। প্রযুক্তির সফল ব্যবহারে বহির্বিশ্বে অনলাইন ক্লাস ও পরীক্ষা নেয়া হয়ে থাকে। আমরাও সেই ধারাবাহিকতায় শিক্ষার্থীদের অনলাইনে পরীক্ষা নিয়ে সেশনজট ও পরীক্ষাজটমুক্ত রাখতে চাই। ছাত্র ছাত্রীদের কল্যানের কথা চিন্তা করেই অনলাইনে পরিক্ষা নেয়া হচ্ছে।
অনলাইন পরীক্ষা প্রসঙ্গে সিভিল বিভাগের চেয়ারম্যান এবং সহকারী অধ্যাপক মাহফুজুর রহমান বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন কার্যক্রম বন্ধ থাকলেও থেমে নেই অনলাইন শিক্ষা কার্যক্রম। আমরাও শিক্ষার্থীদের সেশনজটমুক্ত রাখতে অনলাইন ক্লাস ও পরীক্ষার ব্যবস্থা করেছি। এতে সেশনজট এড়ানো যাবে।এতে শিক্ষার্থীরা মানসিক চাপ মুক্ত থাকবে। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল বিভাগের শিক্ষাকরা খুবই মানবিক। যারা নেটওয়ার্কের বাহিরে থাকবে, অনলাইনে পরীক্ষা দিতে পারবে না, তারা মোবাইল ফোনে কল করে মৌখিক পরীক্ষা দিতে পারবে। আর এ্যাসাইনমেন্ট পরে জমা দিতে পারবে।
Print Friendly, PDF & Email
0Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

যাদুবিদ্যায় মানুষ রুপান্তরিত হলো কুমিরে!

মুশফিকা ইকফাত নাবিলা :: মাগুরা জেলার  মহম্মদপুর ও ফরিদপুর উভয়ের শেষ সীমানায় ...