ব্রেকিং নিউজ

শিক্ষা মন্ত্রনালয় কতৃক বিদ্যালয়ের পানি, স্যানিটেশনের পরিপত্র-২০১৫ হালনাগাতকরণে পরামর্শ সভা

ডরপ'র ওয়েব আলোচনা

ছাইফুল ইসলাম মাছুম :: সরকার ২০১৫ সালে ‘মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়, মাদরাসা, কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহের টয়লেট ও স্যানিটেশন ব্যবস্থা উন্নত করণ’ বিষয়ক একটি পরিপত্র জারি করে, যা এখন পর্যালোচনা করে আরো হালনাগাদ করা জরুরি। এই পরিপত্র বাস্তবায়নে কোথা থেকে বাজেট বরাদ্দ দিবে? তার কোন উল্লেখ নেই। তারও কোন ব্যাখা নেই। কবে নাগাদ পরিপত্র বাস্তবায়ন হবে সেই সময়ও নির্ধারিত নেই।

রবিবার (৯ আগস্ট) সকালে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ডরপ’র ওয়েব আলোচনা সভায় এ দাবি জানিয়েছে এনজিও নেটওয়ার্ক প্রতিনিধিরা।

বক্তারা বলেন, সুস্বাস্থ্যের জন্য সুপেয় পানি ও স্যানিটেশনের গুরুত্ব অনেক। কিন্তু সরকারের পলিসিতে এই খাত অনেকটা উপেক্ষিত। তারা বলেন, ‘করোনা ও বন্যার সংকট কালীন সময় মাথায় রেখে স্বাস্থ্যবিধি খাতে সরকারের নজর বাড়াতে হবে। বাড়াতে হবে বাজেট বরাদ্দ।’

সভাপ্রধান হিসেবে ছিলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. আতিউর রহমান। ডর্‌প এর গবেষণা পরিচালক এবং সকলের জন্য পানি ও স্যানিটেশন (এসডব্লিউএ) দক্ষিণ এশিয়ার সিএসও প্রতিনিধি মোহাম্মদ যোবায়ের হাসান সঞ্চালনায় আলোচনায় অংশ নেন বিবিএস এর ডেপুটি ডিরেক্টর আলমগীর হোসেন, ড. শরিফুল আলম, ওয়াটারএইড কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল মুহিত, এনজিও কর্মকর্তা তারেক সালাউদ্দিন, ভার্কের নির্বাহী পরিচালক ইয়াকুব হোসেন, বাংলাদেশ ওয়াশ এ্যালায়েন্স’ কান্ট্রি কো-অর্ডিনেটর অলক কুমার মজুমদার, বাওইন’র সদস্য রঞ্জন ঘোষ, এসডব্লিউ’র সদস্য ও ম্যাক্স ফাউন্ডেশনের কান্ট্রি ডিরেক্টর রিয়াদ ইমাম মাহমুদ, ফেনসা’র সদস্য জোসেফ হালদার, সংবাদিক কামরুন্নাহার, হেলভিটাস সুইস ইন্টারকোঅপারেশনের প্রজেক্ট ম্যানেজার আশীষ বড়ুয়া, পিকেএসএফ’র তারেক সালাউদ্দিন, উসাপ-বাংলাদেশ এর কান্ট্রি প্রোগ্রাম ম্যানেজার আব্দুস শাহীন, ভয়েস অব সাউথ বাংলাদেশ’র নির্বাহী পরিচালক শহীদুল ইসলাম, বরগুনা পানি ব্যবস্থাপনা নাগরীক কমিটির সদস্য সচিব মো: আশ্রাফউদ্দিন, ভোলা চিলড্রেন প্রতিবন্ধি স্কুল এর পরিচালক জাকিরুল হক, ইউনাইটেড নিউজ টুয়েন্টিফোর ডট কমের আ.হ.ম ফয়সল প্রমুখ।

ড. আতিউর রহমান তার বক্তব্যে বলেন, ‘স্যানিটেশন নিয়ে বাংলাদেশে তথ্য বহুল গবেষণার প্রয়োজন রয়েছে। কোথায় ভালো স্যানিটেশন ব্যবস্থা আছে, আর কোথায় স্যানিটেশন ব্যবস্থায় মনিটরিং ড্যাশবোর্ড থাকা প্রয়োজন। এতে সারাদেশের স্যানিটেশন ব্যবস্থার সঠিক চিত্র পাওয়া যাবে।’

আলমগীর হোসেন বলেন, ‘স্যানিটেশন বিষয়ক সচেতনতা স্কুল পর্যায়ে শুরু করতে পারলে পারিবারিক জীবনেও এর প্রভাব পড়বে। আর শুধু টয়লেট থাকলে হবে না, যথাযথ ব্যবস্থাপনা করে ব্যবহার উপযোগী করতে হবে।’

রিয়াদ ইমাম মাহমুদ বলেন, ‘বিদ্যালয়ে ওয়াশ ও এমএইচএমকে শিক্ষার্থীদের জন্য অত্যাবশকীয় পরিসেবা হিসেবে সরকারি নির্দেশনা থাকা প্রয়োজন। শিক্ষাবিভাগের বর্তমান রিপোর্টিং সিস্টেমের সাথে ওয়াশ ও এমএইচএম রিপোর্ট অত্যাবশ্যক হিসেবে সরকার পরিপত্র প্রকাশ করতে পারেন।’

কামরুন্নাহার বলেন, ‘আমাদের খাবার পানি ও টয়লেট ঠিক না থাকলে, স্বাস্থ্যও ঠিক থাকবে না। স্কুলে শিক্ষকেরা বাচ্চাদের মানুষ মনে করে না, নিজেরা ভালো টয়লেট ব্যবহার করে বাচ্চাদের দেয় নোংরা টয়লেট।’

ড. শরিফুল আলম বলেন, ‘দেশের স্যানিটেশন ব্যবস্থাপনা খুবই নাজুক অবস্থায় রয়েছে। সেটা মেডিকেল কলেজ বলেন আর সচিবালয়ে বলেন একই চিত্র।’

আব্দুল্লাহ আল মুহিত বলেন, ‘পরিপত্র কাগজে কলমে করলে হবে না, বাস্তবায়ন করতে হবে। শিক্ষার্থীদের ভালো স্যানিটেশন নিশ্চিত করতে স্কুল কমিটি ও অভিভাবকদের যুক্ত করতে হবে।’

ওয়েব আলোচনায় সহযোগী ছিল নিউজ পোর্টাল ইউনাইটেড নিউজ টুয়েন্টিফোর ডট কম।

 

Print Friendly, PDF & Email
0Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

মেঘনার ভাঙ্গন কবলিত এলাকা পরিদর্শনে পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী

রামগতি(লক্ষ্মীপুর)প্রতিনিধি :: পানি সম্পদ মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রী লেঃ কর্ণেল (অবঃ) জাহিদ ফারুক শামিম এমপি ...