ব্রেকিং নিউজ

ডব্লিউআইসিসিআইয়ের বাংলাদেশ-ভারত ব্যবসায়িক কাউন্সিলের পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত

ঢাকা :: উইমেন ইন্ডিয়ান চেম্বার অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজ ডব্লিউআইসিসিআই, বাংলাদেশের বাংলাদেশ-ভারত বিজনেস কাউন্সিলের সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় ডব্লিউআইসিসিআই বাংলাদেশের কাউন্সিল সদস্য এবং উপদেষ্টাদের পরিচিতি এবং ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে বাণিজ্যিক সম্পর্ক জোরদার করার বিয়য়ে ডব্লিউআইসিসিআই কি ভুমিকা রাখতে পারে সে সব বিষয় তুলে ধরা হয়।

গত সোমবার (৩০ আগস্ট) সংগঠনের সভাপতি মানতাশা আহমেদের সভাপতিত্বে ভার্চুয়াল মাধ্যমে সভায় বক্তব্য রাখেন, ঢাকায় নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলি দাস, ডব্লিউআইসিসিআই ভারত এর সভাপতি ডঃ হারবিন আরোরা এবং ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম, শিল্প মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব পরাগ হক, বাংলাদেশ-ভারত ব্যবসায়িক কাউন্সিলের পৃষ্ঠপোষক মনোয়ারা হাকিম আলী এবং বাংলাদেশ-ভারত ব্যবসায়িক কাউন্সিলের উপদেষ্টা সোনিয়া বশির কবির।
.
ডঃ হারবিন আরোরা বাংলাদেশের নারী উদ্যোক্তাদের সাফল্যের গল্পগুলি তুলে ধরা এবং পাশাপাশি নতুন ব্যবসায়িক উদ্যোগে গ্রহনের কথা উল্লেখ করেন এবং তাই ভারত-বাংলাদেশ দ্বিপাক্ষিক কাউন্সিল গঠন করার গুরুত্ব তুলে ধরেন।

মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, ভারত ও বাংলাদেশের ব্যবসায়ের দুর্দান্ত সুযোগ রয়েছে । তিনি বিশ্বাস করেন যে এতে নারী উদ্যোক্তারাও বড় ভূমিকা রয়েছে। দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য ঘাটতি সমাধানের ক্ষেত্রে দ্বিপাক্ষিক কাউন্সিলের গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা আছে বলে তিনি মনে করেন।

সনিয়া বশির কবির নারী উদ্যোক্তাদের জন্য তথ্য ও প্রযুক্তির গুরুত্ব এবং দেশে বর্তমান ডিজিটাইজেশনে মহিলাদের অন্তর্ভুক্তির প্রয়োজনীয়তা নিয়ে আলোচনা করেন।

মনোয়ারা হাকিম আলী বলেন, ভারত ও বাংলাদেশের সাথে যেসব বাণিজ্জিক ঘাটতি আছে সেসবের মধ্যে ভারসাম্য করা দরকার

পরাগ হক বলেন, কোভিডের পরবর্তী এসএমইগুলি কীভাবে পুনরুদ্ধার করতে পারে সে সম্পর্কে পরিকল্পনা করা প্রয়োজন। তিনি সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপ সম্পর্কে সবাইকে অবগত করেন। স্মার্ট সিটি যাতে নারী বান্ধব হয় সেটি মাথায় রেখে নীতিনির্ধারকদের পরিকল্পনা গ্রহন করা উচিত।

রিভা গাঙ্গুলি দাস বলেন, উভয় দেশের ইতিবাচক বন্ধুত্বপূর্ণ প্রতিবেশী সম্পর্ক রয়েছে। ভারত বাংলাদেশের পারস্পারিক সহযোগিতা একটি চলমান প্রক্রিয়া । বাংলাদেশ সামাজিক খাতে ভালো করছে। দেশের প্রতিটি ক্ষেত্রে নারীর উপস্থিতি সহ নারীর ক্ষমতায়ন দৃশ্যমান।

কাউন্সিলের সভাপতি মানতাশা আহমেদ, ইন্ডিয়া বাংলাদেশ চেম্বার অফ কমার্স এবং বাংলাদেশ ফ্যাশন অ্যাসোসিয়েশনের যৌথ উদ্যগে গড়ে ওঠা “দেশী ভালোবাসি” প্রকল্পটি শুরু করার কথা জানান।

সভায় কাউন্সিলের সদস্য এবং উপদেষ্টা সহজ ডটকম এর প্রতিষ্ঠাতা মালিহা মালিক কাদিরহার স্টোরি ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা জেরিন মাহমুদ হোসেনসি ন্যাচারাল ফুড এবং আয়আল কর্প লিমিটেড এর চেয়ারপার্সন জয়া কবির, আমেরিকান আলাম্নাই এসোসিয়েশনের সভাপতি এবং আয়াত এডুকেশনের সিইও নুসরাত ফিরোজ আমানকে আই টি সি লিমিটেড’র কান্ট্রি ডিরেক্টর অ্যান্ড সিইও জারা জাবিন মাহবুবআমরা রমণীর প্রতিষ্ঠাতা মালিয়া হোসেনবেসিস এর সহ-সভাপতি ফারহানা এ রহমানবিশিষ্ট ব্যাবসায়ি সোহানা রউফ, সারা কামালকুক্স আপ টেকনলজি লিমিটেডের সিটিও নাহিতা নিশমিনআযিযা খাননুযহাত বারিবিশিষ্ট উদ্যোক্তা লুৎমিলা ফরিদগুলশান আলিবিশিষ্ট চিত্রশিল্পি কনকচাঁপা চাকমা (উপদেষ্টা), মেহনাজ হুদা, মেহনাজ ইসলাম চৌধুরি, যমুনা গ্রুপের পরিচালক নিয়াসা ইসলাম, কর্পোরেট আইনজীবী এবং মিডিয়া ব্যক্তিত্ব ব্যারিস্টার মিতি সানজানা উপস্থিত ছিলেন। 

ড. রুমানা দওলা প্রত্যেককে ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্তি করেন।-প্রেস বিজ্ঞপ্তি

Print Friendly, PDF & Email
0Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

বৃষ্টির পানি সংরক্ষণ করে দৃষ্টান্ত স্থাপন

এম. আর. লিটন : দেশজুড়ে যখন বিশুদ্ধ পানি সংকট ও পানি সমস্যা ...