জেলা প্রতিনিধি:: সাধারণত আশ্বিন মাসের শুক্ল পক্ষের ষষ্ঠ থেকে দশম দিন পর্যন্ত সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবথেকে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দূর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হয়। এই পাঁচটি দিন যথাক্রমে দূর্গাষষ্ঠীক, মহাসপ্তমী, মহাষ্টমী, মহানবমী ও বিজয়াদশমী নামে পরিচিত।

সারা দেশের ন্যায় ঝিনাইদহেও যথাযোগ্য মর্যাদা ও আনন্দের মধ্যদিয়ে উদযাপিত হয়েছে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের শারদীয় দূর্গাপূজা। ১১ অক্টোবর সোমবার থেকে শুরু হয় সনাতন ধর্মম্বলিদের শারদীয় দূর্গা উৎসবে আনন্দের সমাহর। ঝিনাইদহে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সুষ্ঠ ও সুন্দরভাবে পূজাঅর্চনা ও সার্বিক নিরাপত্তায় প্রতিবছরের ন্যায় এবছরও পূজামন্ডপগুলোতে দায়িত্ব পালন করেছে বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী।

এবছর ঝিনাইদহ জেলার ৬ টি উপজেলায় ৪৫২ টি পূজা মন্ডপে দায়িত্বপালন করে আনসার ভিডিপি। ১৪ অক্টোবর পর্যন্ত পূজামন্ডপের সার্বিক নিরাপত্তার জন্য ৬৯০ জন আনসার সদস্য ৬০ টহল টিমে দায়িত্ব পালন করেছে। পরিস্থিতির বিবেচনায় নিরাপত্তার স্বার্থে ১৫ অক্টোবর পর্যন্ত প্রতিটি পূজামন্ডপে ০২ জন করে আনসার-ভিডিপি সদস্য স্ট্যাটিক ডিউটি পালন করে। এজন্য বাহিনী থেকে তারা আরো ২১৪ জন সদস্যকে মোতায়েন করে। ঝিনাইদহের সমগ্র জেলার পূজামন্ডপগুলোতে যেকোন কঠিন পরিস্থিতি মোকাবেলায় প্রশিক্ষপ্রাপ্ত আনসার ভিডিপি সদস্যদের প্রস্তুত রাখা হয়। মোবাইল টীমের মাধ্যমে জােরদারদার টহলে পূজামন্ডএলাকাগুলোতে নিরাপত্তায় ভূমিকা রাখে জেলা আনসার-ভিডিপি।

আনসার ও ভিডিপি’র উপপরিচালক ও জেলা কমান্ড্যান্ট মোঃ আশিকউজ্জমান সহ উপজেলা আনসার-ভিডিপি কর্মকর্তা ও টিআইবৃন্দ ছয়টি উপজেলার সকল পূজা মন্ডপ পরিদর্শন করে সেখানকার সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণ করেন। জেলা কমাড্যান্ট মোঃ আশিকউজ্জামান জানান, সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী তাদের সদস্যরা পুজামন্ডগুলোতে সার্বিক নিরাপত্তার দায়িত্বপালন করেছে। ঝিনাইদহে সুষ্ঠুভাবে শারদীয় দূর্গা উৎসব সম্পন্ন ও কোন অনাকাংক্ষিত ঘটনা ঘটেনি তাতে তিনি তার সদস্যসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here