ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলা শহরের নিমতলা বাসষ্ট্যন্ডে শনিবার সকালে স্থানীয় ছাত্রদল আয়োজিত ঈদ পুর্নমিলনী অনুষ্ঠান পুলিশ ও ছাত্রলীগের যৌথ হামলায় পন্ড হয়ে গেছে। এ সময় ছাত্রদলের রবিউল ইসলাম, দোলন, তরিকুল, হাফিজুর ও আমিরসহ অন্তত ১৫ নেতা কর্মী কম বেশি আহত হয়েছেন। আহতরা বিভিন্ন ক্লিনিক ও বাসায় প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।

প্রত্যক্ষদর্শী  সুত্রে জানা গেছে আজ শনিবার সকাল ১১টার দিকে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল কালীগঞ্জের নিমতলা বাসষ্ট্যান্ড সংলগ্ন দলীয় অফিসের সামনে মঞ্চ তৈরী করে ঈদ পুর্নমিলনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

ঝিনাইদহ জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক ইলিয়াস রহমান মিঠু জানান, অনুষ্ঠান শুরুর আগ মুহুর্তে ছাত্রলীগ ক্যাডার নাসিরউদ্দীন পলাশ ও কালীগঞ্জ থানার ওসি সৈয়দ কামরুজ্জামানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ অনুষ্ঠান স্থলে প্রবেশ করে বেধড়ক নেতাকর্মীদের পেটাতে থাকেন। ছাত্রলীগ ও পুলিশের যৌথ লাঠি পেটায় ছাত্রলের নেতা কর্মীরা এদিক ওদিক পালিয়ে যায়। ফলে ছাত্রদলের পূর্ব নির্ধারিত অনুষ্ঠান পন্ড হয়ে যায়। এ সময় পুলিশের উপস্থিতিতে ছাত্রলীগের কর্মীরা মঞ্চ ও অনুষ্ঠানের চেয়ার টেবিল ভাংচুর করে বলে মিঠু অভিযোগ করেন।

কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক আমিরুজ্জামান খান শিমুল জানান, হামলার পর তিনি ঘটনাস্থলের একটি বাড়িতে আশ্রয় নেন। তিনি বলেন এ ধরণের হামলা গনতন্ত্রের জন্য শুভ নয়।

এ বিষয়ে কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ কামরুজ্জামান জানান, পুলিশ তাদের উপর কোন হামলা করেনি। দলীয় কোন্দলের কারণে ছাত্রদলের অনুষ্ঠান পন্ড হয়েছে। এ বিষয়ে কালীগঞ্জ থানায় এখনো কেও অভিযোগ করেনি বলে ওসি জানান।

ইউনাইটেড নিউজ ২৪ ডট কম/শাহারিয়ার রহমান রকি/ঝিনাইদহ

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here